The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

ব্ল্যাক ফাঙ্গাস: সংক্রমণ রোধে করণীয়

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ভয়াবহ করোনার মধ্যে আরেকটি আতঙ্ক ব্ল্যাক ফাঙ্গাস।এই ব্ল্যাক ফাঙ্গাস নতুন সঙ্কট তৈরি করেছে। আজ জেনে নিন ব্ল্যাক ফাঙ্গাস সংক্রমণ রোধে করণীয় বিষয়গুলো।

ব্ল্যাক ফাঙ্গাস: সংক্রমণ রোধে করণীয় 1

এই ব্ল্যাক ফাঙ্গাস বা কালো ছত্রাক থেকে সাধারণত সুস্থ মানুষদের সেইভাবে আতঙ্কিত হওয়ার কিছুই নেই। শুধুমাত্র যাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম তাদের এই ব্ল্যাক ফাঙ্গাস সমস্যা দেখা দিতে পারে। এমনটাই জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

এই ব্ল্যাক ফাঙ্গাস থেকে বাচঁতে হলে বেশ কিছু নিয়ম মেনে চলতে হবে। যেমন:

# রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতে হবে।
# পুঁজ বেরনোর পর রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা মাপতে হবে। ডায়াবেটিস রোগীদের ক্ষেত্রেও তাই করতে হবে।
# সঠিক পরিমাণে ও ঠিক সময় স্টেরয়েড গ্রহণ করতে হবে।
# অক্সিজেন থেরাপির সময় পরিষ্কার, স্টেরিলাইজ করা পানি ব্যবহার করা (হিউমিডিফায়ারে)।
# প্রয়োজনে অ্যান্টিবায়োটিক ও অ্যান্টি ফাঙ্গাল ওযুধ সেবন।

কী কী এড়িয়ে চলবেন

# লক্ষণগুলি খেয়াল রাখা এবং অবহেলা না করা।
# নাকে কালচে দাগ দেখলেই আতঙ্কিত না হয়ে, বিশেষ করে যে কোভিড রোগীদের রোগ প্রতিরোধক ক্ষমতা কম তাদের সচেতন হওয়া।
# ফাঙ্গাসের উপস্থিতি বুঝতে প্রয়োজনীয় শারীরিক পরীক্ষা করতে ভয় পাওয়া যাবে না (কেওএইচ স্ট্রেনিং, মাইক্রোস্কোপি, কালচার ইত্যাদি)।
# চিকিৎসা শুরু করতে মোটেও দেরি না করা ইত্যাদি।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

Loading...