The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

২০০ কেজি সোনা দিয়ে তৈরি বিশ্বের বৃহত্তম কোরআন শরীফ

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ বিশ্বের ‘সবচেয়ে বড়’ পবিত্র কোরআন শরীফ তৈরির মাধ্যমে নতুন ইতিহাসের জন্ম হতে চলেছে। এটি পূর্বের ‘সর্ববৃহৎ’ পবিত্র কোরআন তৈরির সকল রেকর্ডকে ছাড়িয়ে যাবে বলে দাবি করেছেন সংশ্লিষ্টরা।

২০০ কেজি সোনা দিয়ে তৈরি বিশ্বের বৃহত্তম কোরআন শরীফ 1

ইতিমধ্যে পাকিস্তানের করাচীতে বিশাল টিম নিয়ে শুভ মহরতে কাজটি শুরুও হয়ে গেছে। পবিত্র কোরআন তৈরির কাজটি হাতে নিয়েছে স্বনামধন্য পাকিস্তানী ভাস্কর এবং চিত্রশিল্পী শহীদ রাসাম। এতে করে দুই হাজার কেজি অ্যালুমিনিয়াম এবং ২শ’ কেজি স্বর্ণ ব্যবহার করা হয়েছে।

এবারই প্রথম অ্যালুমিনিয়াম এবং স্বর্ণের প্রলেপ দিয়ে ক্যানভাসে কোরআনের সর্ববৃহৎ কপি খোদাই করা হয়েছে বলে জানা গেছে। এই খবর প্রকাশ করেছে পাকিস্তানী জিও টিভি।

শিল্পী রাসাম জানিয়েছেন, বিশ্বের সবচেয়ে বড় খোদাই করা পবিত্র কোরআনের প্রকল্পটি হলো অনন্য একটি প্রকল্প। ফ্রেম ছাড়া পবিত্র কোরআনের কপিটির দৈর্ঘ্য ৮.৫ ফুট ও প্রস্থ ৬.৫ ফুট। এর মধ্যে ব্যবহৃত হয়েছে ৮০ হাজার শব্দ। প্রতি পৃষ্ঠাতে ১৫০ শব্দ থাকবে। মোট ৫৫০টি পৃষ্ঠা থাকবে। এতে ২শ’ কেজি স্বর্ণ ওএবং ২ হাজার কেজি অ্যালুমিনিয়াম ব্যবহৃত হবে।

তিনি আরও জানিয়েছেন, তিনি সব সময়ই চ্যালেঞ্জ নিতে ভালোবাসেন। তাই সর্বদা নিত্য-নতুন বিষয় নিয়ে কাজ করেন থাকেন। ৪ বছর আগে তিনি এই প্রকল্পটি শুরু করেছেন।

৫৫০ ক্যানভাসে পবিত্র কোরআন শরীফ শেষ করার কাজটি এখনও চলমান রয়েছে। প্রাকৃতিক মূল্যবান পাথর এবং অ্যালুমিনিয়ামে স্বর্ণের প্রলেপ দেওয়া পবিত্র কোরআনের কপিটি আগামী এক হাজার বছর স্থায়ী হবে বলে জানানো হয়েছে।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের কাপড়ের মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

Loading...