The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

বাঁধাকপি তোলার চাকরির মাসিক বেতন হলো ৬ লাখ টাকা!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ কৃষি কাজে এতো বেতন তা কেও কল্পনাও করতে পারবে না। বাঁধাকপি তোলার চাকরির মাসিক বেতন হলো ৬ লাখ টাকা! এও কী সম্ভব?

বাঁধাকপি তোলার চাকরির মাসিক বেতন হলো ৬ লাখ টাকা! 1

এমন ঘটনা ব্রিটেনের। বাঁধাকপি ও ব্রকোলি চাষ করা অর্থাৎ কেবলমাত্র এই কাজের জন্যই বছরে পাওয়া যাবে প্রায় ৭২ লক্ষ টাকা! হ্যাঁ, শুনতে আপনার কাছে অবাক লাগলেও সম্প্রতি একটি সংস্থা শুধু এই কাজের জন্যই এতো টাকা বেতনে কর্মচারী নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি দিয়েছেন।

কী কারণে এতো টাকা মজুরি দেওয়া হচ্ছে? এর কারণ হিসেবে জানা যায়, বর্তমানে ব্রিটেনে কর্মী সংকট দেখা দিয়েছে। এক কথায় বলা যায়, সেখানে রীতিমতো কর্মী নিয়ে হাহাকার পড়ে গেছে। কর্মীর অভাবে ফসলের মাঠে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে সবজি। তাই শুধুমাত্র ক্ষেত থেকে বাঁধাকপি তোলার জন্যই বছরে ৬২ হাজার পাউন্ড (বাংলাদেশী মুদ্রায় প্রায় ৭১ লাখ ৯৩ হাজার টাকা) বেতনে চাকরির একটি বিজ্ঞাপন দিয়েছে ব্রিটিশ এক কোম্পানী। টাকার অংকে হিসাব করলে মাসিক বেতন দাঁড়াবে প্রায় ৬ লাখ টাকা!

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবরে বলা হয়, ব্রিটেনের কৃষিবিষয়ক ওই কোম্পানীটি বছরজুড়ে ক্ষেত থেকে বাঁধাকপি ও ব্রকলি তোলার জন্য কর্মীদের এমন মোটা বেতনের প্রস্তাব দিয়েছে। শুধু তাই নয়, এর পাশাপাশি আরও বেশ কিছু সুযোগ-সুবিধাও রয়েছে কর্মীদের জন্য, যেগুলো যে কাওকে এই কাজের প্রতি আকৃষ্ট করবেই।

টি এইচ ক্লিমেন্টস অ্যান্ড সন লিমিটেড নামে ওই সংস্থার চাকরির বিজ্ঞাপন দেওয়া হয়েছে অনলাইনে। সেখানে বলা হয়েছে, সারা বছর মাঠ থেকে বাঁধাকপি ও ব্রকলি তোলার কাজের জন্য জনবল নিয়োগ করা হবে। কর্মীকে প্রতি ঘণ্টায় ৩০ পাউন্ড (বাংলাদেশী মুদ্রায় প্রায় ৩ হাজার ৫০০ টাকা) করে প্রদান করা হবে।

ব্রিটেনের লিঙ্কনশায়ারের টি এইচ ক্লিমেন্টস অ্যান্ড সন লিমিটেডের প্রকাশিত বিজ্ঞাপন বলা হয় যে, একজন কর্মী দিনের ৮ ঘণ্টায় ২৪০ পাউন্ড বা এক সপ্তাহের ৪০ কর্মঘণ্টায় ১ হাজার ২০০ পাউন্ড পাবেন। এই হিসেবে পুরো বছরে একজন কর্মী বেতন হিসেবে পাবেন ৬২ হাজার ৪০০ পাউন্ড। চাকরির শর্তে বলা হয়, এটি মূলত শারীরিক শ্রমের কাজ এবং এটি সারা বছরই কর্মীকে করতে হবে।

এই কাজের জন্যই অনলাইনে দুটি বিজ্ঞাপন প্রকাশিত হয়। একটি বিজ্ঞাপনে বলা হয়েছে যে, কোম্পানী বাঁধাকপি তোলার জন্য, ফিল্ড অপারেটর সন্ধান করছে। এই কাজটি পিসওয়ার্ক অর্থাৎ যেসব বাঁধাকপি ও ব্রকলি ভেঙে গেছে তার সংখ্যা অনুযায়ী আপনি অর্থও পাবেন। এই কাজে প্রতি ঘণ্টায় অন্তত ৩০ পাউন্ড পর্যন্ত আয় করার সম্ভাবনা রয়েছে। এই কাজটি চলবে সারা বছর।

আরেকটি মজার বিষয় হলো, চাকরিতে বেতন প্রতি ঘণ্টা হিসেবে প্রদান করা হবে। অর্থাৎ দিনে বেশি অর্থ আয় করার পথও খোলা থাকবে একজন কর্মীর জন্য। তবে সবজির সংখ্যা অনুযায়ী অর্থ কম-বেশিও হতে পারে। কৃষি কাজে এতো বিপুল পরিমাণ বেতনের প্রস্তাব দেখে অনেকেই অবাক হয়েছেন।

উল্লেখ্য, করোনা মহামারীর কারণে পুরো ব্রিটেনজুড়ে তীব্র শ্রমিক সংকট দেখা দেয়। এই সংকট কাটিয়ে উঠতে দেশটির সরকার মৌসুমী কৃষি কর্মী প্রকল্পের অধীনে লোকজন নিয়োগের চিন্তা-ভাবনাও করছে। শুধু কৃষিই নয়, দেশটির অন্যান্য খাতেও কর্মীর তীব্র ঘাটতির কারণে ভালো বেতন দেওয়া হচ্ছে।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের কাপড়ের মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

Loading...