রোনালদো এই পৃথিবীর বাইরের খেলোয়াড়!

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ লা লীগায় রোনালদোর উনিশতম হ্যাটট্রিকে রিয়াল সোসাইডাডকে ৫-১ গোলে পরাজিত করার পর রোনালদোর প্রশংসায় সবাই পঞ্চমুখ। দলের কোচ থেকে শুরু করে সতীর্থ পর্যন্ত সবাই! আর হবেই না কেন, এবারের মৌসুমেই যেনো রোনালদোর পায়ে গোল বাঁধ মানতেই চাইছে না, কয়দিন আগেই পেরিয়ে গেছেন চ্যাম্পিয়ন্স লীগে মেসির গড়া সর্বোচ্চ গোলসংখ্যাকে।


338918_heroa

সাম্প্রতিক হ্যাটট্রিকের পর রোনালদোর প্রশংসা করতে গিয়ে কোচ কার্লোস আনচেলত্তি বলেছেন, “রোনালদো এই পৃথিবীর বাইরের খেলোয়াড়! সে অসাধারণ দৃঢ়তার সাথে এই মৌসুমের একের পর এক গোল করে যাচ্ছে। তাঁকে ব্যাখ্যা করার জন্য সঠিক উপমা ব্যবহার করা আসলেই কঠিন!”

অবশ্য কোচ পুরো দলের কৃতিত্ব দিতেও কার্পণ্য করেননি। তিনি বলেছেন, “এই মৌসুমে রিয়াল তাঁর খেলোয়াড়দের সর্বোচ্চ ব্যবহার করতে পারছে। খেলোয়াড়রাও মাঠে নিজেদের প্রমাণ করার জন্য উঠেপরে লেগেছে, তাঁরই ফলাফল টানা জয়।”

“বিশেষ করে খেদিরা তাঁর ধারাবাহিক পারফরম্যান্স ধরে রেখে দলকে সাহায্য করে যাচ্ছে। এর আগেও বলেছি জাভি এলোনসো আমাদের খুবই গুরুত্বপুর্ণ খেলোয়াড়, মাঠে খেলার প্রতি তাঁর আবেদন আপনাকে মুগ্ধ করবে।”

“এছাড়াও আমাদের সাইড বেঞ্চে আরও গুরুত্বপুর্ণ খেলোয়াড় রয়েছে, ডি মারিয়া এবং ইসকো। আমরা যেকোনো সময় যেকাউকে ব্যবহার করতে পারি, আমাদের সুযোগের অভাব নেই! আমারতো মনে হচ্ছে এই দলটা রিয়ালের সেরা দলগুলোর একটি!”

অন্যদিকে নিজের সাফল্যে উছ্বসিত রোনালদো নিজেও। বিশেষ করে গত ম্যাচে হ্যাটট্রিকে জন্য বেলের অবদানকে তুলে ধরলেন তিনি, “সে আমাদের সাথে খুবই ভালো খেলছে এবং খুব দ্রুত মানিয়ে নিয়েছে। মাঠে তাঁর মতো খেলোয়াড় পেয়ে আমি খুবই খুশি, এছাড়াও করিম এবং ডি মারিয়াকে আমার ধন্যবাদ!”

“আমরা খুব ধীরে খেলা শুরু করলেও শেষ পর্যন্ত দলের আত্মবিশ্বাস খুঁজে পেয়েছি এবং আমরা পুরো একটি দল হয়ে খেলছি এখন। এই মৌসুমে এখন পর্যন্ত আমরা ভালো অবস্থানে আছি, আশা করি শিরোপাটা জিতেই ছাড়বো।”

রোনালদো প্রশংসা করেছেন রিয়ালের গোল রক্ষক ডিয়েগো লোপেজও। তিনি বলেছেন, “তাঁর অসাধারন খেলা দেখেই আমি মাঠে প্রেরণা খুঁজে পেয়েছি। বিশেষ করে গোল আটকাবার জন্য আমি কঠোর চেষ্টা করেছি এবং সফল হয়েছি।”

লোপেজ আরও বলেন, “কোচকে ধন্যবাদ না দেয়াটা ভুল হবে। প্রথমদিকে কোচের খেলানর পদ্ধতি নিয়ে সমালোচনা থাকলেও এর ফলাফল আমরা পেতে শুরু করেছি। রিয়াল সোসাইডাডকে ৫-১ গোলে হারানো অবশ্যই বড় কিছু। তারা ছেড়ে দেয়ার মতো দল না।”

এদিকে লোপেজের জন্য ইকার ক্যাসিয়াস সুযোগ না পাওয়ায় তাঁর সাথে সম্পর্ক খারাপ হয়েছে কীনা এমন প্রশ্নের জবাবে লোপেজ বলেন, “আমি এই বিষয়ে কথা বলা বন্ধ করে দিয়েছি অনেক আগেই। ক্যাসিয়াসের সাথে আমার পরিচয় আমার ১৮ বছর বয়স থেকে। তাঁর সাথে সম্পর্ক খারাপ হওয়াটা একটা অসম্ভব ব্যাপার! আর মাঠে ক্যাসিয়াসের নিজেকে ঢেলে দেয়াটা থেকে আমি শিখেছি কীভাবে গোলপোষ্ট আগলে রাখতে হয়।”

৩২ বছর বয়স্ক ক্যাসিয়াস গত জানুয়ারী মাস থেকেই দলে উপেক্ষিত হয়ে আছেন। এর পেছনে অবশ্য ইঞ্জুরিও দায়ী ছিলো। কিন্তু ইঞ্জুরি থেকে ফিরে আসার পর এখন পর্যন্ত দলে সুযোগ পাননি ক্যাসিয়াস। লোপেজ যেভাবে গোলবার আগলে রেখেছেন এই মৌসুম জুড়ে তাতে অদূর ভবিষ্যতে ক্যাসিয়াস আবার সুযোগ পাবেন কীনা এই প্রশ্নটি উঠে গেছে।

This slideshow requires JavaScript.

তথ্যসূত্রঃ goal.com

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...