শেষ অ্যালবাম নিয়ে শাহনাজ রহমতউল্লাহর গান থেকে বিদায়

ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ বাংলাদেশের সংগীতের চিরসবুজ শিল্পী শাহনাজ রহমতউল্লাহর শেষ তিনটি গান নিয়ে প্রকাশিত হয়েছে ‘বাদলদিনের পাখি’ নামের একটি মিশ্র অ্যালবাম। আর এই অ্যালবামের মাধ্যমে তিনি তার গান গাওয়া জীবনের ইতি টেনেছেন।

অ্যালবামে অন্যান্য শিল্পীর গানের সঙ্গে থাকছে তাঁর গাওয়া শেষ তিনটি গান। শাহনাজ রহমতউলস্নাহ জানান, এরপর আর কোনো নতুন অডিও অ্যালবাম কিংবা চলচ্চিত্রের গানে তিনি কণ্ঠ দেবেন না। ‘বাদলদিনের পাখি’ অ্যালবামের তিনটি গানই তাঁর জীবনের শেষ গান বলে উল্লেখ করেছেন এই প্রখ্যাত কণ্ঠশিল্পী।
‘বাদলদিনের পাখি’ বাজারে এনেছে সন্ধ্যাবৃষ্টি প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান। গতকাল সোমবার অ্যালবামটি বাজারে ছাড়া হয়েছে।

ডা. ইকবালের পরিকল্পনায় ‘বাদলদিনের পাখি’ অ্যালবামে গান রয়েছে ১৪টি। এর মধ্যে তিনটি গান গেয়েছেন শাহনাজ রহমতউলস্নাহ। বাকি গানগুলো গেয়েছেন শাকিলা জাফর, ফাহমিদা নবী, আলম আরা মিনু, রূপম, যুবীন, তানজিনা, পঙ্কজ, নাজমুল, জাকিয়া সুলতানা ও ডা. ইকবাল।

অ্যালবামটি প্রসঙ্গে শাহনাজ রহমতউল্লাহর বলেন, ‘খুবই ভালো কথার গান করেছি; সুরও চমৎকার। ১৪টি গানের মধ্যে আমি তিনটি গানে কণ্ঠ দিয়েছি। আমার সবগুলো গানের সুর করেছেন ইকবাল। বেশ যত্ন নিয়ে তিনি গানগুলো তৈরি করেছেন। আশা করছি, অ্যালবামের সবগুলো গানই শ্রোতাদের ভালো লাগবে।’
শেষ গান প্রসঙ্গে শাহনাজ রহমতউল্লাহ বলেন, ‘৫০ বছরের সংগীতজীবন আমাকে অনেক কিছু দিয়েছে। আজকে আমার যে অবস্থান, তা সংগীতের কল্যাণেই হয়েছে। কোনো ধরনের অভিমানের কারণে গানের জগৎ থেকে নিজেকে সরিয়ে নিচ্ছি না। এটা আমার একান্ত ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত।’

১৯৬৩ সালে ‘নতুন সুর’ ছবির মাধ্যমে চলচ্চিত্রে গান গাওয়া শুরু করেছিলেন শাহনাজ রহমতউলস্নাহ। গানের জগতে তাঁর ৫০ বছরে শাহনাজ রহমতউলস্নাহর চারটি অ্যালবাম প্রকাশিত হয়েছে। প্রথম অ্যালবামটি ছিল প্রণব ঘোষের সুরে ‘বারোটি বছর পরে’, তারপর প্রকাশিত হয়েছিল আলাউদ্দীন আলীর সুরে ‘শুধু কি আমার ভুল’।

গানের পাখি শাহনাজ রহমতুল্লাহর চলে যাওয়া

সচরাচর বিশেষ করে সঙ্গীত শিল্পীদের ক্ষেত্রে এমনটি মনে হয় আর কখনও ঘটেনি। তাই ঘটলো এবার। কারণ অভিনয় যারা করেন, তাদের অনেকেই বয়স হলে অভিনয় ছেড়ে দেন অর্থাৎ ঘোষণা দিয়েই ছেড়ে দেন। কিন্তু কখনও কোন কণ্ঠ শিল্পীকে এভাবে বিদায় জানাতে দেখা যায় নি। বাংলা গানের অনন্য এক নাম শাহনাজ রহমতউল্লাহ সংগীত জীবনে পঞ্চাশ বছর পূর্ণ হয়েছে তার। তিনটি গান নিয়ে সর্বশেষ সিডিটি প্রকাশ করার পরই জানিয়ে দিয়েছেন তিনি আর গাইবেন না।

আধুনিক, দেশাত্ববোধক, ছায়াছবি মিলিয়ে অসংখ্য জনপ্রিয় গান আছে তার? ‘যে ছিল দৃষ্টির সীমানায়’, ‘আমায় যদি প্রশ্ন করে’, ‘সাগরের সৈকতে’, ‘আমি তো আমার গল্প বলেছি’, ‘একবার যেতে দে না’, ‘একতারা তুই দেশের কথা, ‘খোলা জানালায়’ এমন অনেক গান আছে যেগুলো শ্রোতামনে চির অমর করে রাখবে শাহনাজ রহমতউল্লাহকে? উপমহাদেশে সুপরিচিত বাংলাদেশের এই শিল্পী জানিয়ে দিয়েছেন আর গান গাইবেন না।

কেন? কারণটা পুরোনোই। সংসার জীবনে প্রবেশের পর থেকে অনিয়মিতই হয়ে পড়েছিলেন সংগীত জগতে। শ্রোতার সামনে সশরীরে আসেন না অনেক বছর ধরে। এবার সংগীত জীবনের পঞ্চাশ বছর পূর্তির সঙ্গে সঙ্গে জানিয়ে দিলেন বাকি জীবনটা পরিবার আর ধর্মকর্ম নিয়েই থাকতে চান।

শাহনাজ রহমতউল্লাহ সংগীত জীবনে না থাকলেও তার কথা বাঙালি জাতি চিরদিন স্মরণ করবে। কারণ তার গাওয়া দেশাত্ববোধক গানগুলো এখনও মানুষের হৃদয়কে নাড়া দেয়।

Advertisements
Loading...