মাছসহ খাদ্যদ্রব্যে দেদারছে ব্যবহার হচ্ছে ফরমালিন ॥ অপব্যবহার রোধে কঠোর আইন আসছে

ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ সমপ্রতি ফরমালিনের ব্যবহার অস্বাভাবিক আকারে ছড়িয়ে পড়ায় দেশে ফরমালিনের অপব্যবহার রোধে সরকার এর আমদানি ও বিক্রি নিয়ন্ত্রণে কঠোর পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছে বলে জানা গেছে।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (আমদানি) কমল কৃষ্ণ ভট্টাচার্য বলেন, আমাদের দেশে ফরমালিন বাণিজ্য এখন মুক্ত, যার যা খুশি কিনতে ও বিক্রি করতে পারে। শিগগিরই এর পাইকারী আমদানি নিয়ন্ত্রণে কঠোর আইন করা হবে। যাতে করে এভাবে দেদারসে এই ক্ষতিকর সামগ্রীটি জনগণ ব্যবহার করতে না পারে। তিনি বলেন, মন্ত্রণালয় এ জন্য বিধিবদ্ধ আদেশ (এসআরও) জারির পরিকল্পনা করছে।

কমল কৃষ্ণ ভট্টাচার্য আরও বলেন, “গত সপ্তাহে আমরা ফরমালিন আমদানিকারকদের সঙ্গে বৈঠক করেছি। তাছাড়া ফরমালিন আমদানি ও বিক্রি নিয়ন্ত্রণে ব্যবস্থা গ্রহণ বিষয়ে আলোচনার জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও আণবিক শক্তি কমিশনসহ সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে আমরা বৈঠকে করব।” বিশেষজ্ঞদের সুপারিশের ভিত্তিতে সবকিছু নির্ধারিত হবে এবং একটি পৃথক এসআরও জারি করা হবে বলে তিনি সাংবাদিকদের জানান।

বর্তমানে ফরমালিন আমদানি তদারক প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “ফরমালিন আমদানি ও বিক্রি পর্যায়ে তদারকি অত্যন্ত দুর্বল। আমরা এ ধরনের রাসায়নিকের অবাধ আমদানির পাশাপাশি এর ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ করতে চাই।” কর্মকর্তা বলেন, প্রাথমিকভাবে মন্ত্রণালয়ের পরিকল্পনা হলো ফরমালিন আমদানির জন্য আমদানিকারকদের অবশ্যই মন্ত্রণালয়ের অনুমতি নিতে হবে।

উল্লেখ্য, খোলাবাজারে ইচ্ছেমতো ফরমালিন আমদানি ও কেনাবেচার সুযোগ থাকায় মাছ ও খাদ্যদ্রব্য সহ নানা পণ্যে মানবস্বাস্থ্যের জন্য মারাত্বক ক্ষতিকর এ রাসায়নিকটি অতি সহজেই ব্যবহার করতে পারছে ব্যবসায়ীরা। সমপ্রতি ফরমালিন নিয়ে দেশের জাতীয় দৈনিকগুলোও ফলাও করে সংবাদ প্রকাশ করছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে সরকারি সংশ্লিষ্ট মহলে এনিয়ে আলোচনা শুরু হওয়ায় সচেতন মহল আশাম্বিত হয়েছে।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...