The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

ফাস্টফুডের থেকে হিমায়িত খাদ্য বেশি স্বাস্থ্যকর

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ আমাদের দেশে রান্না করে খাওয়ার প্রবণতা বেশি। কিন্তু যাদের রান্না করার সুযোগ নেই তারা হয় বিভিন্ন হোটেল রেস্টুরেন্টে ফাস্টফুড নতুবা হিমায়িত খাদ্য দিয়ে খাওয়া-দাওয়া চালিয়ে দেন। প্রশ্ন হচ্ছে, এগুলো কি স্বাস্থ্যকর? এই দুটির মধ্যে কোনটি উত্তম? এই প্রশ্নের উত্তর দিল সিডিসি। তাদের মতে হিমায়িত খাদ্য ফাস্টফুড থেকে অনেক বেশি স্বাস্থ্যকর।


images_Fotor_Collage

যুক্তরাষ্ট্রের আটলান্টায় অবস্থিত সেন্টারস ফর ডিজিজ কন্ট্রোল এন্ড প্রিভেনশন অবস্থিত। এটি সংক্ষেপে সিডিসি নামে পরিচিত। তারা গবেষণা করে দেখেছে, যারা ফাস্টফুড খায় তাদের চেয়ে হিমায়িত খাদ্য গ্রহণকারীরা ভাল পুষ্টি পেয়ে থাকে। সিডিসি’র নিজেদের জাতীয় স্বাস্থ্য ও পুষ্টি পর্যবেক্ষণ গণনায় এই তথ্য উঠে এসেছে। এই গণনা যুক্তরাষ্ট্রে ২০০৩ থেকে ২০১০ সাল পর্যন্ত পরিচালিত হয়।

সিডিসি’র পর্যবেক্ষণে দেখা যায়, যারা হিমায়িত খাদ্য গ্রহণ করে তারা অধিক সবজি যেমন শাক, মটরশুটি এবং শস্যদানা খায়। এইক্ষেত্রে ফাস্টফুড গ্রহণকারীদের অপেক্ষা কম ক্যালরি (খাদ্য থেকে প্রাপ্ত কর্মশক্তির একক) গ্রহণ করার প্রবণতা থাকে।

GTY_grocery_store_jef_131018_16x9_608

আর যারা হোটেল রেস্টুরেন্টে ফাস্টফুড খায় তাদের অধিক ক্যালরি, মিহি করা শস্য এবং হিমায়িত খাদ্য গ্রহণকারী অপেক্ষা কম প্রোটিন গ্রহণ করার প্রবণতা থাকে।

promo_am-crunchwrap

গবেষণার সহকারী গবেষক ডঃ ভিক্টর এল. ফালগনির মতে, হিমায়িত খাদ্য গ্রহণকারীরা ফাস্টফুড খাদকদের থেকে আদর্শ পুষ্টি গ্রহণের দিকে এগিয়ে আছে। প্রতিদিন হিমায়িত খাদ্য গ্রহণকারীরা অপর দল ফাস্টফুড গ্রহণকারীদের অপেক্ষা ২৫৩ ক্যালরি বেশি লাভ করে।

এই গবেষণার ফলাফল নিশ্চিতভাবেই ফাস্টফুড অপেক্ষা হিমায়িত খাদ্যকে এগিয়ে রাখছে। তাই রান্না করার সুবিধা না থাকলে ফাস্টফুড না খেয়ে হিমায়িত খাদ্য খাওয়াই উত্তম।

সূত্রঃ NewsMaxHealth

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...