টুইটারের ওপর নিয়ন্ত্রণ!

ঢাকা টাইম ডেস্ক ॥ বিশ্বের সোস্যাল নেটওয়ার্কের খ্যাতনামা প্রতিষ্ঠান টুইটার তার সেবার ওপর আংশিক নিয়ন্ত্রণ চালু করতে যাচ্ছে। দেশের প্রচলিত আইন-কানুন মানা হচ্ছে না, এই যুক্তি দেখিয়ে সামপ্রতিক সময় ভারত ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মতো দেশ ফেসবুক, গুগলের মতো সংস্থার ওপর চাপ সৃষ্টি করেছে। ভারত ইতিমধ্যে সরকার সরাসরি সেন্সরশিপের বদলে ইন্টারনেট কোম্পানিগুলোকে নিজস্ব উদ্যোগেই এমন সব কনটেন্ট দূরে রাখার আহ্বান জানিয়েছে। এই সকল বিষয়ে বিবেচনায় এনে টুইটার এক অভিনব সিদ্ধান্ত নিয়েছে।
সম্প্রতি টুইটার তাদের ব্লগে ঘোষণা করেছে, যে বিশেষ কোন দেশের আইন লংঘন করলে সেই বার্তা সেই দেশে সেন্সর করা হবে। অর্থাৎ কোন ‘বেআইনি’ টুইট লিখলে তা সেই দেশে টুইটারের পর্দায় দেখা যাবে না। তবে বিশ্বের অন্য দেশগুলো থেকে দেখা যাবে।
উল্লেখ্য, বর্তমানে গোটা বিশ্বে টুইটার ব্যবহারকারীর সংখ্যা প্রায় ১০ কোটি। অপরদিকে জানা গেছে, মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই সামাজিক যোগাযোগের প্রয়োজনীয় গোপন তথ্য ঘেঁটে দেখার উপায় খুঁজছে। ফলে আগামী দিনে টুইটারসহ সামাজিক যোগাযোগের ওয়েবসাইটগুলোর চরিত্র বদলে যাবে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। বাকিটা স্বচোক্ষে দেখার অপেক্ষা করছে এর সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা।

গেম খেলতে খেলতেই-

তাইওয়ানের ২৩ বছর বয়সী ভিডিও গেম আসক্ত এক যুবক সাইবার ক্যাফেতে গেম খেলতে খেলতেই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়লেন। ওই যুবকের নাম চেন জুং-ইউ।
স্কাই নিউজ সূত্রে জানা যায়, তার মৃতদেহ দশ ঘণ্টা পড়ে থাকার পর ক্যাফের কর্মচারীরা তা টের পান। টানা ২৩ ঘণ্টা গেম খেলার জন্য আগেই বিল দিয়েছিলেন তিনি। সময় শেষ হয়ে যাওয়ার পর ডাকতে এলে কর্মীরা চেনকে মৃত অবস্থায় আবিষ্কার করেন। পরে তদন্তে বেরিয়ে আসে তার মৃত্যু আরও দশ ঘণ্টা আগেই হয়েছিল। পুলিশ জানিয়েছে, ছেলেটির মৃত্যুর খবর পেয়ে সেখানে পুলিশ এলেও ক্যাফেতে উপস্থিত অন্য গেমাররা লাশের প্রতি তেমন আগ্রহ না দেখিয়ে গেম নিয়েই ব্যস্ত ছিলেন!
অন্য এক সংবাদ মাধ্যমে জানা যায়, চেন নামের ওই যুবক ‘লিগ অব লেজেন্ডস’ নামের একটি থ্রিডি মাল্টিপ্লেয়ার গেম খেলছিলেন। মৃত্যুর কারণ বের করতে পুলিশ এখনও তদন্ত করছে। (তথ্যসূত্র- দৈনিক যুগান্তর)

 

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...