বরের বয়স ৮ আর কনের বয়স ৬১!

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ মাত্র ৮ বছর বয়সের এক ছোট্ট ছেলে বিয়ে করলো নানী-দাদীর বয়সী কনেকে। দক্ষিণ আফ্রিকার টিশোয়েন এলাকায় ঘটে গেল এমনই ঘটনা। খবর অনলাইন পত্রিকা সূত্রের।
Bor-8 Kone-61
স্যানেলে ম্যাসিলেলার স্ত্রী হেলেন শাবাঙ্গুর বয়স ৬১ বছর। ৫ সন্তানের মা হেলেনের সন্তানদের বয়স ২৭ থেকে ৩৭ বছরের মধ্যে। ৬৫ বছর বয়সী স্বামীও বেঁচে আছেন। অবশ্য এ বিয়ের পেছনে কাজ করছে কুসংস্কারাচ্ছন্ন মানসিকতা। স্যানেলের দাদা মারা যাওয়ার আগে তাকে বিয়ে করতে বলে গিয়েছিলেন। সেটা রক্ষার্থেই বিয়ের সিদ্ধান্ত। বো টাই ও ছোটখাট রুপালি রঙের স্যুট পরিহিত ছোট্ট স্যানেলে কনের সঙ্গে আংটি বদল করলো ১০০ আমন্ত্রিত অতিথির সামনে। চুমুও খেলো অভিনব কায়দায়। কনেকে ঝুঁকতে হয়েছিল, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। মানুষ নানা কথা বলাবলি করলেও বরের পরিবার কিন্তু এ বিয়ের পক্ষেই সাফাই গেয়েছে। স্যানেলের ৪৬ বছর বয়সী মা পেশেনস ম্যাসিলেলা বললেন, পরিবারে এ ধরনের ঘটনা এটাই প্রথম। দাদার নামেই নাম স্যানেলের। দাদার ইচ্ছেটা ছিল এরকমই। হেলেনকে ভালবাসে ও দাদার কথা রাখতে বিয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্যানেলে। কুসংস্কারে বিশ্বাসী এ পরিবারটি। বরের মা বলছিলেন, এতে আমাদের পূর্বপুরুষরা সন্তুষ্ট হবেন। আমরা যদি আমাদের ছেলের ইচ্ছে পূরণ না করতাম, তাতে পরিবারের কোন ক্ষতি হতে পারতো। তিনি এটাকে কোন ভুল মনে করেন না। স্যানেলেও বেশ উচ্ছ্বসিত। স্যানেলে ও হেলেন কোন বিয়ের সনদে স্বাক্ষর করেননি ও তাদের একসঙ্গেও থাকতে হবে না। তারা দু’জনই তাদের স্বাভাবিক জীবনে ফিরে গেছে। বড় হলে স্যানেলে তার বয়সী কোন মেয়েকে বিয়ের ইচ্ছের কথা জানায়। হেলেনকে বিয়ে করে বেশ খুশি আমি। তবে আমি স্কুলে যাবো ও কঠোর পরিশ্রম করবো। হিসেবে নয়া বরের নানী-দাদীর বয়সী হেলেন। কিন্তু পূর্বপুরুষদের মন রক্ষা করতে পেরে তিনিও খুশি।

Advertisements
Loading...