‘বাংলাদেশী’ সাজানোর চেষ্টা আসামের ৪০ লাখ মুসলমানকে!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ‘বাংলাদেশী’ সাজানোর চেষ্টা আসামের ৪০ লাখ মুসলমানকে- এমন অভিযোগ করেছেন অল ইন্ডিয়া ইউনাইটেড ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টের (এআইইউডিএফ) প্রধান সংসদ সদস্য বদরউদ্দিন আজমল।

'Bangladeshi' & 40 million Muslims in Assam

অল ইন্ডিয়া ইউনাইটেড ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টের প্রধান সংসদ সদস্য বদরউদ্দিন আজমল অভিযোগ করে বলেছেন, ভারতের আসাম রাজ্যের ৪০ লাখ মুসলমানকে বাংলাদেশী সাজানোর চেষ্টা চলছে। জাতীয় নাগরিকপঞ্জি (এনআরসি) নবায়ন প্রক্রিয়ায় এসব নাম বাদ দেওয়ার চেষ্টা চলছে বলে গত সোমবার তিনি অভিযোগ করেন। এর বিরুদ্ধে আদালতে যাওয়ার হুমকিও দিয়েছেন তিনি। তবে আজমলের এই মন্তব্যের জের ধরে রাজ্যে রাজনৈতিক দলগুলির মধ্যে তুমুল সমালোচনার ঝড় শুরু হয়েছে।

বদরউদ্দিন আজমল অভিযোগ করে বলেন, ‘নাগরিকপঞ্জি নবায়নের কাজে যুক্ত কিছু সরকারিকর্মী ইচ্ছা করেই অসহযোগিতা করছেন। যে কোনোভাবেই হোক আসামের বাসিন্দা ৪০ লাখ মুসলমানকে বাংলাদেশী সাজানোই তাদের মূল লক্ষ্য।’

এআইইউডিএফ বিধায়ক আব্দুল রহিম খান বলেছেন যে, ‘রাজ্যের সংখ্যালঘু মানুষের স্বার্থে কথা বললে যদি তাদের বিরুদ্ধে ‘বাংলাদেশী রক্ষক’ তকমা দেওয়া হয়, সে অপবাদ মেনে নিতে প্রস্তুত এআইইউডিএফ।’

তিনি আরও বলেন, ‘সংখ্যালঘুদের স্বার্থ রক্ষার জন্য যদি আমাদের সুপ্রিম কোর্টেও যেতে হয় সেজন্য এআইইউডিএফ প্রস্তুত রয়েছে।’

অবশ্য বদরউদ্দিন আজমলের অভিযোগের জবাবে মঙ্গলবার পাল্টা চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েছেন আসামের মুখ্যমন্ত্রী তরুণ গগৈ। তিনি বলেছেন, ‘এই ধরণের অভিযোগ রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। কিছু লোক চাইছে না, জাতীয় নাগরিকপঞ্জি নবায়ন হোক। তাই তারা এমনিতেই বলে বেড়াচ্ছেন ৪০ লাখ লোকের নাম বাদ দেওয়ার চক্রান্ত চলছে।’

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...