ঘর যাতে না ভাঙ্গে তাই এবার বিয়েতে শৌচাগার উপহার!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ কদিন আগেই খবর দেখেছি শৌচাগার না থাকায় এক স্ত্রী তার স্বামীকে তালাক দিয়েছেন। ঘর যাতে না ভাঙ্গে তাই এবার বিয়েতে শৌচাগার উপহার দেওয়া হলো!

gift of marriage toilet

বিয়েতে কি উপহার দেওয়া যায় তা নিয়ে উদগ্রীব থাকেন কনে পক্ষ। আর তাই তাদের নানাভাবে প্রস্তুতও থাকতে হয়। সাম্প্রতিক সময়ের ঘটে যাওয়া ঘটনাটি সকলকেই নাড়া দিয়েছে। ভাতের এক বধু শৌচাগার না থাকায় অপমানিত হয়ে স্বামীকে তালাক দিয়ে বাপের বাড়ি চলে গেছেন। এমন খবরে সকলেই হতবাক। কিন্তু এটি ভারতের প্রত্যন্ত এলাকার বাস্তব চিত্র।

তবে এবার ঘটলো একটু ব্যতিক্রমি ঘটনা। বিয়ের দিন পাঁচেক আগে হঠাৎ মেয়ে জানতে পারেন, তার শ্বশুর বাড়িতে শৌচাগার নেই। আর তাই বেঁকে বসলেন মেয়ে। কনে তার বাবা ও কাকাকে সাফ জানিয়ে দিলেন, কোনো সোনাদানা, গয়না লাগবে না। দিতে হবে একটি শৌচাগার, তবেই তিনি বিয়েতে বসবেন, নইলে নয়।

gift of marriage toilet-2

মেয়ের এমন কথা শুনেতো সবাই হতবাক! কিভাবে তা সম্ভব? অগত্যা মেয়ের দাবি মেনে নেন তার বাবা এবং কাকা। বিয়ের দিন যৌতুক হিসাবে কনেকে দিলেন একটি অস্থায়ী শৌচাগার। এতে দারুণ খুশি মেয়ে এবং শ্বশুর বাড়ির লোকজন সবাই। গ্রামের লোকজনতো এই শৌচাগার দেখে তাজ্জব বনে গেছেন। গত শুক্রবার ভারতের মহারাষ্ট্র রাজ্যের আন্দুরা গ্রামে এই বিয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে। আন্দুরা গ্রামের মারাঠি মেয়ে চৈতালি গালাখের সঙ্গে বিয়ে হয় দেবেন্দ্র মাকোড়ের। আর এই বিয়েতেই মেয়ের বাবা মেয়েকে উপহার হিসেবে দিলেন একটি অস্থায়ী শৌচাগার। ওই শৌচাগারে রয়েছে পানির ট্যাংক, বেসিন, আয়না সবই।

আর যায়ই হোক অন্তত, বিয়ের পরে ওই নববধুকে প্রাকৃতিক কাজ সারতে মাঠে যেতে হবে না এবং কোনো রকম বিব্রতকর অবস্থায় পড়তে হবে না।

উল্লেখ্য, শৌচাগার না থাকায় ভারতের এক নারী তার স্বামীকে তালাক দিয়ে চলে যান বাপের বাড়িতে। এ সংক্রান্ত একটি খবর সম্প্রতি দি ঢাকা টাইমস্ এ প্রকাশ হয়। বিস্তারিত জানতে পড়ুন- টয়লেট না থাকায় স্বামীকে তালাক! [ভিডিও]

Advertisements
Loading...