৩৫ বছরের বরের সঙ্গে ৬ বছরের কনের বিয়ে!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ আমরা আবারও কি সেই আদি আমলে ফিরে যাচ্ছি? এই আধুনিক যুগেও এমন ঘটনা? ৩৫ বছরের বরের সঙ্গে এবার ৬ বছরের কনের বিয়ে হলো!

6-year-old bride married

আমরা আবারও কি সেই আদি আমলে ফিরে যাচ্ছি? এই আধুনিক যুগেও এমন ঘটনা? ৩৫ বছরের বরের সঙ্গে এবার ৬ বছরের কনের বিয়ে হলো!

এক সময় বাল্য বিবাহের প্রচলন ছিল। তখন ছোট ছোট ছেলে-মেয়ের বিয়ে দেওয়া হতো। পুতুল খেলার মতো করে বিয়ে দেওয়া হতো। আর বড় হয়ে সেই বিয়ে মেনে নিতে বাধ্য হতো সেই ছেলে-মেয়ে। কিন্তু সেই আদি যুগের কাহিনী ইতিহাস হয়ে গেছে। আমরা সেসব কাহিনী এখন ভুলতে বসেছি। কিন্তু সম্প্রতি ভারতে এমন একটি অসম বিয়ে সকলকে সেই সব কাহিনী মনে করিয়ে দিচ্ছে। এবার ৩৫ বছরের বরের সঙ্গে ৬ বছরের এক কনের বিয়ে দেওয়া হলো! এই ঘটনাটি ঘটেছে ভারতে।

6-year-old bride married-2

ঘটনাটি অবিশ্বাস্য মনে হলেও ভারতের রাজস্থানে সম্প্রতি এমন একটি বিয়ের খবর পাওয়া গেছে। ধারণা করা হচ্ছে, ২৩ জুন চিতোরগড়ের গাংরা গ্রামের কোনো এক মন্দিরে ৩৫ বছরের রতনলাল জাঠ নামে তার সম্প্রদায়ের ৬ বছর বয়সী এক শিশুকে বিয়ে করেন। ঘটনাটি জানাজানি হওয়ার পর থানা পুলিশ পর্যন্ত গড়িয়েছে বিষয়টি। পুলিশ খবর পেয়ে আটক করে রতনলালকে। সেই সঙ্গে নড়েচড়ে বসেছে স্থানীয় প্রশাসনও। সদর মহকুমা শাসকের নেতৃত্বে একটি তদন্ত কমিটি গঠিত হয়েছে। এ ব্যাপারে দ্রুত প্রতিবেদন দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে ওই কমিটিকে।

স্থানীয় গাংরার পুলিশ পরিদর্শক জ্ঞানেন্দ্র সিং বলেন, ‘সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এবং সংবাদমাধ্যমে বিয়ের ছবি ছড়িয়ে পড়লে ঘটনা তদন্তে একটি দল পাঠানো হয়। পরে সত্যতা নিশ্চিত হলে রতনলালকে ‘বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ আইন-২০০৬’ এর অধীনে আটক করা হয়।’ তিনি আরও জানান, ‘বয়স বেড়ে যাওয়ায় পাত্রী খুঁজে পাচ্ছিলেন না রতনলাল। তাই নিজের সম্প্রদায়ের মধ্যেই ওই মেয়েটিকে বিয়ে করেছেন বলে জেরার মুখে রতনলাল স্বীকার করেছেন।

উল্লেখ্য, ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়, রাজস্থানের এই সম্প্রদায়ের মধ্যে এই ধরনের বিয়ের রেওয়াজ রয়েছে। আর তাই প্রতিবেশীরাও বিয়ে বন্ধের চেষ্টা করেনি।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...