ফেলানির বাবা ভারতের সুপ্রীম কোর্টে আপীল করেছেন

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর গুলিতে নিহত ফেলানীর বাবা ভারতের সুপ্রীম কোর্টে আপীল করেছেন। বিএসএফ সদস্য অমিয় ঘোষকে নির্দোষ ঘোষণার রায় পুনর্বিবেচনা চেয়ে এই আপীল করা হয়েছে।

Bangladeshi-girl-Felony

ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর গুলিতে নিহত ফেলানীর বাবা ভারতের সুপ্রীম কোর্টে আপীল করেছেন। বিএসএফ সদস্য অমিয় ঘোষকে নির্দোষ ঘোষণার রায় পুনর্বিবেচনা চেয়ে এই আপীল করা হয়েছে। শুক্রবার ভারতের সুপ্রীম কোর্টে এই আপীল করেন ফেলানীর বাবা নুরুল ইসলাম এবং ভারতীয় মানবাধিকার সংস্থা সুরক্ষা মঞ্চ নামে একটি সংগঠন।

সর্বশেষ রায়ে ২ জুলাই ভারতের কোচবিহারে বিএসএফের ১৮১ ব্যাটালিয়নের সদরদফতরের সোনারি ক্যাম্পে আধিকারিক সিপি ত্রিবেদীর নেতৃত্বে ৫ সদস্যের বিচারিক প্যানেলে গভীর রাত পর্যন্ত আলোচনা করে বিএসএফের নিজস্ব আদালত রায়ে অমিয় ঘোষকে খালাস প্রদান করে। এই রায় প্রত্যাখ্যান করেন ফেলানীর বাবা নুরুল ইসলাম। এরপর ভারতের আদালতে এই রায়কে চ্যালেঞ্জ করার সিদ্ধান্ত নেয় সেদেশেরই একটি মানবাধিকার সংগঠন। এ বিষয়ে প্রথমে আদালত একটি রুলও জারি করে।

উল্লেখ্য, ২০১১ সালের ৭ জানুয়ারি ফুলবাড়ীর অনন্তপুর সীমান্তে কাঁটাতারের বেড়া পার হওয়ার সময় বিএসএফ সদস্য অমিয় ঘোষের গুলিতে নির্মমভাবে নিহত হয় বাংলাদেশী কিশোরী ফেলানী। প্রায় ৬ ঘণ্টা কাঁটাতারের সঙ্গে ফেলানীর লাশ ঝুলে থাকায় আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠনগুলো সমালোচনার ঝড় তোলে। আন্তর্জাতিক চাপে শেষ পর্যন্ত বিষয়টি মামলা পর্যন্ত গড়ায়।

Advertisements
Loading...