নির্বাচনোত্তর হিলারির প্রতিশ্রুতি: ৭শ’ বাংলাদেশী বন্দীর মুক্তির জন্য কাজ করবেন

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ এক নির্বাচনোত্তর প্রচারণায় প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হিলারি ক্লিনটন প্রতিশ্রুতি দিয়ে বলেছেন, ৭শ’ বাংলাদেশী বন্দীর মুক্তির জন্য তিনি কাজ করবেন।

prisoners in Bangladesh

জানা যায়, যুক্তরাষ্ট্রের পরবর্তী নির্বাচনের প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হিলারি ক্লিনটন তার নির্বাচনী প্রচারণায় বাংলাদেশীসহ বিশ্বের অন্যান্য বন্দী নাগরিকদের মুক্তি এবং ইমিগ্রেশন রাইটস নিয়ে কাজ করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছেন। হিলালির ব্যক্তিগত সহকারী লরেল প্রাইলি এ কথা জানিয়েছেন।

এমন একটি খবরে যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশী সোসাইটির মধ্যে খুশির আমেজ লক্ষ করা যাচ্ছে। ইমিগ্রেশন জটিলতায় যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন কারাগারে প্রায় ৭শ’ এর মতো বাংলাদেশী নাগরিক বন্দী অবস্থায় রয়েছে।

গত বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন ডিটেনশন সেন্টারে আমরণ অনশনরত বন্দীদের মুক্তির দাবিতে র‌্যালি এবং মানববন্ধনের আয়োজন করেছিল সাউথ এশিয়ান মানবাধিকার সংগঠন ডেসিস রাইজিং আপ মুভিং-ড্রাম নামে একটি সংগঠন। ওই কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে হিলারির প্রতিনিধি দলটি বন্দী মুক্তিতে কাজ করার প্রতিশ্রুতি দেন। মানববন্ধনে অংশ নিয়ে লরেলা প্রাইলি বলেছেন, ‘আমার নিজেরও এক সময় কাগজপত্র ছিল না। আর তখন আমি বুঝেছি বিষয়টি কতটা কষ্টের।’ বিভিন্ন কারাগারে বন্দীদের আইনি সহায়তা এবং ইমিগ্রেশন রাইটস নিয়ে হিলারি ক্লিনটনের কাজ করার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তিনি। তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের ইমিগ্রেশন ইস্যুতে ডেমোক্রেটরা সব সময় নিরলসভাবে কাজ করে আসছে।

উল্লেখ্য, গত সপ্তাহে বাংলাদেশী বন্দীরা নতুন করে ৪টি কারাগারে অনশন শুরু করেছে। তাদের মুক্তির দাবিতেই র‌্যালি ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে ওই সংগঠন ড্রাম।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...