এয়ার ফ্রেসনার যখন নারীদের নেশার বস্তুু!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ নেশার জগত যেনো দিনকে দিন বাড়ছে। এবার এমন এক জিনিসের খবর পাওয়া গেলো যেটি এখন মেয়েদের নেশার বস্তুতে পরিণত হয়েছে। এয়ার ফ্রেসনার এখন নারীদের নেশার বস্তুু!

Air Fresheners & intoxicated women

নেশা এমন একটি জিনিস যা ছাড়ানো একেবারে দুরুহ ব্যাপার। এমনই এক নেশাখোর নারীর খবর পাওয়া গেছে যে পানির বদলে স্প্রে খেয়ে থাকে। আর ওই স্প্রে ঘর ফ্রেস রাখার অর্থাৎ এয়ার ফ্রেসনার। সংবাদ মাধ্যম টুডের এক খবরে বলা হয়েছে, দুই সন্তানের জননী ২৭ বছরের ইভলিন বলেছেন, স্প্রে খেতে না পেলে তার বেঁচে থাকাটা দুঃসহ হয়ে পড়বে। যুক্তরাষ্ট্রের বাসিন্দা ইভলিন সপ্তাহে অন্ততপক্ষে ২০ ক্যান এয়ার ফ্রেসনার স্প্রে খেয়ে ফেলেন।

বিশেষজ্ঞদের বক্তব্য হলো, ঘরকে সুগন্ধীযুক্ত করতে যে স্প্রে ব্যবহার করা হয়ে থাকে, সেটিতে অনেক বিষাক্ত রাসায়নিক পদার্থ থাকে। যেটি খেলে অবধারিত ক্ষতির সম্ভাবনা রয়েছে।

জানা যায়, ওই নারী ইভলিনের নেশা এমনই মারাত্মক, যে তিনি দিনে অন্ততপক্ষে ৩ বার স্প্রে খান। কখনওবা সরাসরি মুখেই স্প্রে করে খেয়ে নেন। আবার কখনও কাপে বরফ ঢেলে মদের মতো করে স্প্রে করে খেয়ে নেন। চিকিসকরা বহুবারই সতর্ক করে বলেছেন যে, তার এই অভ্যেস প্রাণঘাতীতে পরিণত হতে পারে। তবে ওই সতর্কবাণীকে উপেক্ষা করেই নেশায় মশগুল নেশাখোর ইভলিন!

উল্লেখ্য, মাই স্ট্রেঞ্জ অ্যাডিকশন নামে একটি টিভি শো-তে ইভলিন তার এই নেশার কথা প্রথম প্রকাশ করে। একবার ভুল করে এয়ার ফ্রেসনার তিনি চেখে ফেলার পর ধীরে ধীরে এক সময় তিনি নেশায় জড়িয়ে পড়েন।

Advertisements
Loading...