যেদেশে স্বামী মারা গেলে কেটে দেওয়া হয় স্ত্রীর আঙুল!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ এমন কথা আমরা আগে কখনও শুনিনি। সত্যিই আশ্চর্যজনক ঘটনা হলো এমন এক দেশ যেদেশে স্বামী মারা গেলে কেটে দেওয়া হয় স্ত্রীর আঙুল!

wife's finger

সংবাদ মাধ্যমের খবরে জানা যায়, স্বামী মারা গেলে শোক পালনের জন্য নাকি স্ত্রীর আঙুল কেটে ফেলা হয়? বিষয়টি শুনতে আশ্চর্য মনে হলেও এ রকমই এক প্রথা প্রচলিত রয়েছে ইন্দোনেশিয়ার পাপুয়ার দানি সম্প্রদায়ভুক্তদের মধ্যে।

পাপুয়ার দানি সম্প্রদায়দের প্রচলিত প্রথা অনুযায়ী, যখনই পরিবারের কর্তাব্যক্তি মারা যান, শোক পালনের জন্য স্ত্রীর দুই হাতের বেশ কয়েকটি আঙুল কেটে দেওয়া হয়। পাপুয়ার দানি সম্প্রদায়ভুক্ত অধিবাসীদের বিশ্বাস, এতে নাকি মৃত ব্যক্তির আত্মার শান্তি হয়। আঙুল কাটার পূর্বে বিধবা নারীর হাত শক্ত করে বেঁধে দেওয়া হয়, যাতে করে তার হাতে রক্তের প্রবাহ বন্ধ হয়ে যায়। তার পর কুড়াল দিয়ে নির্মমভাবে কেটে দেওয়া হয় আঙুল।

বড়ই আশ্চর্যের বিষয় হলো, যন্ত্রণায় কাতরাতে কাতরাতে এই প্রথা সহ্য করতে হচ্ছে সেখানকার বিধবাদের। দীর্ঘদিন ধরেই চলে আসছে নিষ্ঠুর এই প্রথা ওই সম্প্রদায়ের মধ্যে। ওই দ্বীপে গেলেই দেখা মিলবে এমন অনেক আঙুলবিহীন নারীর।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি ইন্দোনেশিয়ার সরকার এই অমানবিক প্রথাটির ওপর ইতিমধ্যেই নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে বলে জানা গেছে।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...