এক ব্যক্তি তিনদিন তিমির পেটে!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ একদিন দু’দিন নয় তিনদিন এক ব্যক্তি তিমির পেটে! এমন কথা শুনে হয়তো আপনি বিস্মিত হতে পারেন। কিন্তু এমন একটি ঘটনা ঘটেছে বাস্তবে। কীভাবে?

whale's belly for three days

একটি তিমি একজন মানুষকে গিলে খাওয়ার পরও বেঁচে থাকে এমন কথা রূপকথার গল্পের মতো শোনা যায়। তবে বাস্তবে কি এটা সম্ভব? স্পেনের এক জেলে তিমির পেটে তিনদিন থাকার পরও তিনি দিব্যি বেঁচে রয়েছেন। কী চমকে উঠলেন তো? লুইগি মার্কেজ নামের এই জেলে তিমির পেটে তিনদিন থেকেও প্রাণ নিয়ে বেরিয়ে এসে চারদিকে হুলুস্থুল কাণ্ড ঘটিয়ে ফেলেছেন।

সংবাদ মাধ্যমের খবরে জানা যায়, জীবিকার তাগিদে স্পেনের সমুদ্রে মাছ ধরেন লুইগি। ঘটনার দিনও তিনি মাছ শিকার করছিলেন। আচমকা কিছু বুঝে ওঠার আগেই সামুদ্রিক ঝড়ের কবলে পড়ে যান লুইগি। ঝড় থামার পর তাকে কোথাও খুঁজে পাওয়া গেলো না। কোস্টগার্ডরাও খুঁজে না পেয়ে হাল ছেড়ে দিলেন। তবে তিনদিন পর দেখা মিললো লুইগির। তারপর তিনি যে বর্ণনা দিলেন তা সত্যিই বিস্ময়কর!

লুইগি দাবি করে বলেছেন, সেদিন নৌকা ঝড়ের কবলে পড়ার পর একটি তিমি গিলে খেয়ে ফেলে তাকে। ঝড়ের সময় কি হয়েছিল তা কিছুতেই মনে পড়ছিল না লুইগির। তবে তিনি যখন চেতনা ফিরে পান, তখন একটি অন্ধকার স্থানে নিজেকে আবিষ্কার করনে। আলো বলতে ছিল তার একমাত্র হাতের ওয়াটারপ্রুফ ঘড়ির আলো। সেই ঘড়ির মাধ্যমেই সময় মেলাতে থাকেন লুইগি। এমন এক পরিস্থিতিতে তীব্র আতঙ্কে অস্থির হয়ে পড়েন লুইগি। তবুও হাল ছাড়েননি তিনি। অবশেষে ওই তিমিটি বমি করে বের করে বের করে দেয় লুইগিকে। আর এভাবেই ফিরে আসেন লুইগি।

Advertisements
Loading...