মবিল ও ছাঁই খেয়ে পনের বছর ধরে!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ভাত-রুটি খেয়েই মানুষ সাধারণতভাবে বাঁচে। তবে এবার ঘটেছে অন্যরকম একটি ঘটনা। এক যুবক মবিল ও ছাঁই খেয়ে পনের বছর ধরে বেঁচে আছেন!

Mobil and ash taste for fifteen years

ভারতের বেঙ্গালুরুর এক যুবক নাম কুমার। মবিল ও ছাঁই খেয়ে পনের বছর ধরে বেঁচে আছেন বলে ওই যুবক এই অদ্ভুত দাবি করছেন। তিনি বলেছেন, পনের বছর ধরে স্রেফ পোড়া ইঞ্জিন অয়েল এবং কাগজের ছাঁই খেয়ে বেঁচে রয়েছেন তিনি।

তবে স্থানীয়দের কাছে ওই যুবক অয়েল কুমার নামে পরিচিত। বাড়ি ভারতের কর্নাটকের শিমোগায়।

ওই যুবকের বক্তব্য হলো, তিনি যখন খুব ছোটো ছিলেন, তখন বাবা-মা তাকে বেঙ্গালুরু স্টেশনে ফেলে পালিয়ে যান। বর্তমানে তিনি কোলার এলাকার শনিশ্বর মন্দিরের কাছে থাকেন।

কুমার বলেছেন, ‘একটা সময় বেঙ্গালুরুতে কুলির কাজ করতাম। যার অধীনে আমি কাজ করতাম, বহুদিন তিনি আমাকে টাকা-পয়সা দেননি। একটা সময় খিদের জ্বালায় পোড়া ইঞ্জিন অয়েল খেতে বাধ্য হই। সেই থেকে শুরু। পরে শুরু করি কাগজ পোড়ার ছাই খাওয়া। প্রথমে আমার শরীরে অদ্ভুত একটা কষ্ট হতো, তবে এখন সয়ে গেছে।’ এখন গোটা দিনে অন্তত ৫ লিটার পোড়া ইঞ্জিন অয়েল খেয়ে ফেলতে পারেন কুমার।

বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, খাবার না খেয়ে একজন মানুষ খুব বেশি হলে সপ্তাহ তিনেক বেঁচে থাকতে পারে। তারপর তার বাঁচার কথা নয়। তবে কুমার জানিয়েছেন, সবটাই ভগবানের আশীর্বাদ।

Advertisements
Loading...