নওয়াজ শরীফের সরকার পাকিস্তানে শান্তি ফিরিয়ে আনতে পারবে?

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ সাম্প্রতিক ইসলামী প্রজাতন্ত্রী পাকিস্তান জাতীয় পরিষদের নির্বাচনে পাকিস্তন মুলসিমলীগ (পিএমএল-এন) ২৭২টি আসনের মধ্যে ১৩০টিতে জয় পেয়েছে। জাতীয় পরিষদে পরিষ্কার সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাওয়ার পর জোট সরকার গঠনের লক্ষ্যে পিএমএল-এন অন্যান্য দলের সঙ্গে আলোচনা শুরু করেছে। তবে বর্তমানে আভ্যন্তরীণ তালেবানি ও কিছু ইসলামিস্ট গ্রুপের জঙ্গিবাদে দেশটির অবস্থা নাজুক। সব কিছুর পর ও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে পারমাণবিক শক্তিধর রাষ্ট্র হিসেবে পাকিস্তানের রাজনিতিক পরিবর্তনের দিকে বিশেষ দৃষ্টি রয়েছে অনেক দেশের। নির্বাচন পরবর্তী পাকিস্তানের পররাষ্ট্রনীতিতে পরিবর্তনের প্রথম দৃশ্যমান পদক্ষেপ হচ্ছে পাকিস্তানের সেনাপ্রধান জেনারেল আশফাক পারভেজ কিয়ানি চলতি মাসে রাশিয়া সফরে যাচ্ছেন। এ সফরের সাথে পাকিস্তানের আভ্যন্তরীণ রাজনিতিক অস্থিতিশীলতার বিষয়ে বিদেশী শক্তির প্রভাব পরিবর্তিত হতে যাচ্ছে।


nawaz-sharif

রাশিয়ায় পাকিস্তানের কোনো সেনাপ্রধানের প্রথম রাষ্ট্রীয় সফর এটি। এর আগে পাকিস্তানের সাবেক সামরিক শাসক জেনারেল পারভেজ মোশাররফ রাষ্ট্রপ্রধান হিসেবে ২০০৩ সালে মস্কো সফর করেছিলেন। জেনারেল কিয়ানির এ সফরের মধ্যদিয়ে শীতল যুদ্ধের সময় থেকে চলে আসা ইসলামাবাদ-মস্কো টানাপড়েনের সমাপ্তি ঘটবে এবং দুই দেশের সম্পর্কে নতুন অধ্যায়ের সূচনা হবে বলে আভাস দেয়া হচ্ছে।

পাকিস্তানের ইংরেজি দৈনিক দ্য এক্সপ্রেসে দেশটির সরকারি সূত্র হতে নিশ্চিত করেছে জেনারেল কিয়ানি চলতি মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে মস্কো সফরে যাচ্ছেন যাকে ‘ঐতিহাসিক’ সফর বলা যায়। রুশ প্রেসিডেন্ট এর পক্ষথেকে প্রেসিডেন্ট প্রাসাদ ক্রেমলিনে কিয়ানিকে উষ্ণ অভ্যর্থনা দেয়া হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এ সফরে দিল্লী-ইসলামাবাদ , ওয়াশিংটন-ইসলামাবাদ সম্পর্কের বিষয় উঠে আসবে। পাকিস্তানের একজন উচ্চপদস্থ সেনা কর্মকর্তা বলেন, জেনারেল কিয়ানির সফরের সময় দুই দেশের সামরিক বাহিনীর মধ্যে সম্পর্ক বাড়ানোর বিষয়ের ওপর গুরুত্ব দেয়া হবে। তিনি আরো বলেন, দৃষ্টিভঙ্গির দিক থেকে এখন আমেরিকার চেয়ে রাশিয়ার সঙ্গে পাকিস্তানের অনেক বেশি মিল রয়েছে। আফগানিস্তানের চলমান যুদ্ধ সমাপ্তির বিষয়ে দুই দেশই অভিন্ন মত পোষণ করছে। এছাড়া ২০১৪ সালের পর যুদ্ধবিধ্বস্ত আফগানিস্তানে বিদেশি সেনা উপস্থিতির বিষয়েও উদ্বেগ প্রকাশ করেছে মস্কো ও ইসলামাবাদ।

এদিকে পাকিস্তান ও রাশিয়ান সরকারি সুত্রে জানা যায় অক্টোবরে পাকিস্তান সফরে আসবেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভস্নাদিমির পুতিন। তাই তার সফরের আগে কিয়ানির মস্কো সফরকে গুরুত্বপূর্ণ বলে ধরে নেয়া হচ্ছে।

জেনারেল কিয়ানির এ রাশিয়া সফর গত মাসেই যাওয়ার কথা ছিল। তবে ওয়াশিংটনের সঙ্গে আফগান বিষয়ে সৃষ্ট পাকিস্তানের টানাপড়েন নিয়ে আমেরিকান কর্মকর্তাদের সঙ্গে ধারাবাহিক বৈঠকের কারণে সেই সফরের সময় করে উঠতে পারেননি তিনি।

পাকিস্তানের পররাষ্ট্রনীতি দেশটির স্বাধীনতা পরবর্তী সময় থেকেই ওয়াশিংটন কেন্দ্রিক ছিল। তবে সাম্প্রতিক পিএমএল-এন নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার পর প্রথম পদক্ষেপেই দেখা যাচ্ছে পাকিস্তান তাদের আগের পররাষ্ট্রনীতি থেকে সরে আসছে। অনেক বিশ্লেষকই এই পরিবর্তন কে পাকিস্তানের রাজনীতির জন্য ইতিবাচক হিসেবেই দেখছেন।

পিএমএল-এন এর একজন প্রভাবশালী নেতা যিনি পিএমএল-এন এর পররাষ্ট্রনীতি বিষয়ক পরামর্শ দাতা, তিনি বলেন নেওয়াজের পররাষ্ট্রনীতির মূল লক্ষ্য হবে দেশের স্বার্থ রক্ষা করা। আফগান সীমান্তে অ্যামেরিকার ড্রোন হামলা নিয়ে পাকিস্তান-অ্যামেরিকা পররাষ্ট্র বিষয়ক সম্পর্কে উষ্ণতা বিরাজ করছে। পাকিস্তান সরকার পাকিস্তানের উপজাতি অধ্যুষিত এলাকায় ড্রোন হামলা না করার আহ্বানের পর ও অ্যামেরিকা তাতে কর্ণপাত করছেনা যেটা পাকিস্তান কে উদ্বিগ্ন করে তুলছে। ওয়াশিংটনের এধরনের হামলাকে নেওয়াজ ও তার দল অত্র অঞ্চলের স্বাধীনতার উপর হস্তক্ষেপ হিসেবে দেখছেন। অপরদিকে পাক ভারত সম্পর্কের ব্যাপারে নেওয়াজ সরকার নতুন করে ভাবছে বলেও তিনি জানান। তিনি আরও বলেন নেওয়াজ সরকারে অধীনে পাকিস্তান সামনে সব দেশের সাথে বন্ধুত্ত পূর্ণ সম্পর্ক রক্ষার ব্যাপারে জোর দিবে তাদের পররাষ্ট্রনীতিতে।

উল্লেখ্য বর্তমান পাকিস্তানে প্রতিদিনই আত্মঘাতী বোমা হামলা সহ তালেবান পন্থী জঙ্গিরা নানান জঙ্গি তৎপরতা চালাচ্ছে। অসঙ্খ প্রাননাশের ঘটনা ঘটছে। পাকিস্তান আফগানিস্থানে মার্কিন হামলায় শুরু থেকে সমর্থন প্রদান করে আসে। মার্কিন বাহিনি পাকিস্তানের স্থলপথ ও আকাশ সীমা ব্যাবহার করছে। এর ফলশ্রুতিতেই আফগানিস্থানের পাশাপাশি পাকিস্থানের আভ্যন্তরীণ রাজনীতি ও শান্তি বিগ্নিত হচ্ছে। নেওয়াজ শরিফ সরকার গঠনের প্রাথমিক পর্যায়ে রাশিয়ার সাথে সুসম্পর্ক ও পিএমএল-এন এর নির্বাচনী প্রতিশ্রুতিতে আভ্যন্তরীণ শান্তি প্রতিষ্ঠার বিষয়ে গুরুত্ব দেয়ায় এখন দেশটির মানুষ আশা করছে নেওয়াজ শরীফের সরকার দেশে শান্তি ফিরিয়ে আনবে।

সংবাদ সূত্রঃ: ইত্তেফাক

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...