এক ব্যতিক্রমি প্রতিবাদের প্রস্তাব: বাটলারের আউটে নীরব থেকে এক হাত দেখাবে ইংল্যান্ডকে!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ইংল্যান্ডের বাটলার কি আচরণ করেছেন তা সকলের জানা। তাই চ্যানেল আই অনলাইনের ফেসবুক লাইভ অনুষ্ঠানে এক ফেসবুক বন্ধু রাকিব হোসাইন হেমন্ত বাটলারের আউটে নীরব থেকে প্রতিবাদ জানানোর প্রস্তাব দিয়েছেন!

butler-and-england

এক প্রস্তাব দিয়ে রাকিব হোসাইন হেমন্ত জানিয়েছেন ‘পরের ম্যাচে বাটলার আউট হলে কোনো উচ্ছ্বাস না দেখিয়ে পুরো গ্যালারি মুখে আঙুল দিয়ে ‘চুপ’ হয়ে যাবে! একেবারে পিন-পতন নিরব হয়ে যাওয়ার ভংগি হতে হবে সেটি! সমস্যা না থাকলে যোগ দিতে পারেন ক্রিকেটাররাও’!

এমন একটি প্রস্তাবে ইতিমধ্যেই ইতিবাচক সাড়া দিয়েছে টাইগার ক্রিকেট ভক্তরা। তারা একমত হয়ে এই তথ্যটি ছড়িয়ে দিচ্ছে চট্টগ্রামের গ্যালারিতে যারা থাকবেন সেইসব দর্শকদের কাছে।

দ্বিতীয় ম্যাচে ঘটে যাওয়া ঘটনায় মাশরাফি সাব্বিরের জরিমানা করা হলো, অথচ বাটলারকে স্রেফ তিরস্কার করা হলো। বিষয়টি নিয়ে চ্যানেল আই অনলাইনের ডিজিটাল অ্যান্ড মাল্টিমিডিয়া এডিটর তৌফিক আহমেদ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক লাইভে কথা বলেন চ্যানেল আই সংবাদের স্পোর্টস ইন চার্জ সাইদুর রহমান শামীমের সঙ্গে।

butler-and-england-2

সেদিন ঘটনার সূচনা ঘটেছিল বাটলারের অসংযত আচরণে। তারপর জড়িয়ে পড়েন মাশরাফি, সাব্বিরসহ অন্যরাও। তবে বিষয়টি নিয়ে ভক্তদের মতে, আইসিসি’র তিন মোড়ল তোষণের অলিখিত প্রথার কারণে শাস্তি পেলো দুই বাংলাদেশী ক্রিকেটার মাশরাফি এবং সাব্বির। বিষয়টি নিয়ে চ্যানেল আই অনলাইনের ফেসবুক লাইভ বন্ধুরাও সহমত জানিয়েছেন, এছাড়াও তারা আইসিসিকে ভৎর্সনাও করেছেন।

উল্লেখ্য, ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচে কথিত `অসৌজন্যমূলক‘ আচরণের কারণে বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা ও মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান সাব্বির রহমানকে জরিমানা করেছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। তবে আশ্চর্যের বিষয় হলো ঘটনার কেন্দ্রবিন্দুতে থাকা ইংল্যান্ড দলের অধিনায়ক জস বাটলারকে কেবলমাত্র সতর্ক করেছে বিশ্ব ক্রিকেটের সর্বোচ্চ এই নিয়ন্ত্রক সংস্থা!

ওইদিন (রবিবার) দ্বিতীয় ম্যাচে বাংলাদেশের ৩৪ রানে জেতা ম্যাচে ইংলিশ ব্যাটসম্যান জস বাটলারকে এলবিডব্লিউ করেন তাসকিন আহমেদ। তবে অনফিল্ড আম্পায়ার প্রথমে বাটলারকে আউট দেননি। বাংলাদেশর অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত পুনঃবিবেচনা চেয়ে একটি রিভিউ নেন। থার্ড আম্পায়ার যখন রিভিউ সিদ্ধান্ত দিচ্ছিলেন ঠিক সে সময় ড্রেসিং রুম হতে বাংলাদেশের খেলোয়াড়রা সিগন্যাল পেয়ে যান যে এটি আউট। বাটলারের দিকে তাকিয়ে তারা উদযাপনও শুরু করেন। সেটি ভালো লাগেনি ইংলিশ অধিনায়কের। এর কড়া প্রতিক্রিয়া দেখান বাটলারও।

এরপর ২৪ ঘণ্টারও কম সময়ের মধ্যে ম্যাচ রেফারি জাভাগাল শ্রীনাথ অনফিল্ড আম্পায়ার আলীম দার এবং শরফুদৌল্লা ইবনে সৈকতের বক্তব্য শুনে অভিযুক্ত খেলোয়াড়দের বিপক্ষে শাস্তি ঘোষণা করা হয়। আচরণবিধির আর্টিক্যাল ২-এর ১ দশমিক ৭ ধারা লঙ্ঘন করায় মাশরাফি এবং সাব্বির রহমানকে ম্যাচ ফি’র কুড়ি শতাংশ জরিমানা করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে আনা হয়েছে অশালীন ভাষা প্রয়োগ এবং আক্রমণাত্মক আচরণের। তারা মনে করেন, ম্যাচ রেফারির অভিযোগ সাফল্য উদযাপনের জন্য বাংলাদেশী ক্রিকেটাররা বাড়াবাড়ি করে ফেলেছেন যা বাটলারকেও অনাকাংখিত আচরণ করতে প্রলুদ্ধ করেছে বলে আইসিসি মনে করে।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...