এই বাইক মাত্র এক লিটার পানিতে চলবে ৫০০ কিলোমিটার!

একেবারে সাধারণ পানিই বাইকের জ্বালানির ট্যাঙ্কে ব্যবহৃত হবে!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ যতো দিন গড়াচ্ছে ততোই উদ্ভাবনের সংখ্যাও বাড়ছে। এবার এমন এক বাইক উদ্ভাবন করা হয়েছে যেটি মাত্র এক লিটার পানিতে চলবে ৫০০ কিলোমিটার!

আমরা যানি ক্রমশ ফুরিয়ে আসছে পেট্রল-ডিজেলের ভান্ডার। তাই প্রত্যেকটি দেশ এখন থেকে বিকল্প শক্তি খুঁজে বেড়াচ্ছে। গবেষণা করা হচ্ছে কিভাবে জ্বালানির বিকল্প কিছু বের করা যায়। সেইসঙ্গে গাড়ি তৈরি সংস্থাগুলোও পেট্রল-ডিজেলের বিকল্প ব্যাটারো দিয়ে গাড়ি চালানোর প্রতি উৎসাহ দিচ্ছে। সেই জন্যে নিত্য নতুন গাড়িও তৈরি হচ্ছে। তবে এই সমস্ত কিছুকে ছাপিয়ে গেছেন ব্রাজিলের পাবলিক অফিসার রিকার্দো আজাভেদো। তিনি অভিনব এক বাইকের আবিষ্কার করেছেন। যে বাইক পেট্রল বা ডিজেলে নয়, চলবে পানিতে! রীতিমতো অবিশ্বাস্য ব্যাপার এটি।

শুধু পানিতে চলার বিষয়টিই নয়, এই বাইকের মাইলেজও মাথা খারাপ করে দেওয়ার মতো ঘটনা। মাত্র ১ লিটার পানিতে ৫০০ কিলোমিটার পাড়ি দিতে পারে এই পানি-চালিত মোটরবাইকটি! এই বাইকটি চালাতে কোনও বিশেষ ধরনের পানিরও প্রয়োজন হয় না। একেবারে সাধারণ পানিই বাইকের জ্বালানির ট্যাঙ্কে ব্যবহৃত হবে।

এর ইঞ্জিন গঠিত প্রধানত দু’টি অংশ নিয়ে। এক ওয়াটার ট্যাঙ্ক, দুই একটি ব্যাটারি। ব্যাটারির ইলেকট্রিসিটি পানির হাইড্রোজেন মলিকিউলগুলিকে বিশ্লিষ্ট করে দেয়। তারপর একটি পাইপের মাধ্যমে সেই হাইড্রোজেন প্রবাহিত হয় ইঞ্জিনের মধ্যে। এই হাইড্রোজেনই বাইককে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার উপযোগী শক্তি উৎপাদন করতে সমর্থ হয়।

রিকার্দোর তৈরি করা এই বাইক পরিবেশবান্ধবও। এই বাইকে কোনও রকম খনিজ তেল যেমন খরচ হয় না, তেমনি কোনও রকম ধোঁওয়াও উৎপাদন করে না। যে কারণে পরিবেশ থাকে সম্পূর্ণ সুরক্ষিত। সে কারণে এটিকে পরিবেশ বান্ধব বাইক বলা হচ্ছে।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...