এভারেস্টের উচ্চতা আবারও মাপা হচ্ছে!

২০১৫ সালের ভয়াবহ ভূমিকম্পে বিশ্বের সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গের উচ্চতার বেশ পরিবর্তন ঘটেছে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ বিশ্বের সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গ মাউন্ট এভারেস্টের উচ্চতা নতুন করে আবারও মাপার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নেপাল সরকার। মাপার কাজ সম্পন্ন করতে আগামী দুই বছর সময় লাগবে।

নেপালের কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে কাঠামান্ডু পোস্ট পত্রিকার এক খবরে বলা হয়েছে, আগামী দুই বছর ধরে এভারেস্টের উচ্চতা নতুন করে মাপা হবে। সেইসঙ্গে সেখানকার জলবায়ুর পরিবর্তনের কি কি প্রভাব পড়ছে সেটিও নির্ণয় করা হবে। এতে ১৩ লাখ ডলার ব্যয় হবে বলে সংবাদ মাধ্যমকে জানানো হয়েছে।

নেপালের জরিপ দফতর জানিয়েছে, ২০১৫ সালের ভয়াবহ ভূমিকম্পে বিশ্বের সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গের উচ্চতার বেশ পরিবর্তন ঘটেছে বলে ধারণা করা হয়ে থাকে। আগের জরিপ অনুযায়ী, এভারেস্টের উচ্চতা ছিল ৮ হাজার ৮৪৮ মিটার বা ২৯ হাজার ২৯ ফুট। যে কারণে বর্তমানে এভারেস্টের উচ্চতা কতো তা নির্ণয় করার জন্যই নতুন করে পর্বতশৃঙ্গটির উচ্চতা মাপা হবে।

বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, এভারেস্টের তিনদিক হতে উচ্চতা মাপার এই কাজ শুরু হবে। জরিপের জন্য সংশ্লিষ্ট যন্ত্রপাতি পর্বত চূড়ায় বহন করবে শেরপারা।

সংবাদ মাধ্যমের খবরে জানা গেছে, কেবল নেপালই নয়, ভারতও এভারেস্টের উচ্চতা মাপার কাজ শুরু করবে। গত সপ্তাহে ভারতের জরিপ অধিদফতর হতে এই ঘোষণা দেওয়া হয়।

উল্লেখ্য, অধিকাংশ ভূতত্ত্ববিদের ধারণা, ২০১৫ সালের ভূমিকম্পের কারণে বিশ্বের সর্বোচ্চ এই পর্বতশৃঙ্গের উচ্চতা কিছুটা হ্রাস পেয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। সে কারণেই নতুন করে এই এটি মাপার পরিকল্পনা করা হয়েছে।

Loading...