এক অন্য রকম আবর্জনামুক্ত শাহজালাল বিমানবন্দর

কিভাবে এই নোংরা পরিবেশের পরিবর্তন ঘটলো? আসুন সেই বিষয়ের দিকে আসা যাক

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর আমাদের দেশের অন্যতম আন্তর্জাতিক মানের প্রধান বিমানবন্দর। বিদেশেী অতিথিরা ঢাকায় এলে প্রথমেই বিমানবন্দরের নামেন। বিমান বন্দরে নেমেই এতোদিন তাদের চোখে পড়তো নোংড়া পরিবেশ। তবে সম্প্রতি বদলে গেছে এখানকার অপেক্ষারুমের চিত্র!

কিভাবে এই নোংরা পরিবেশের পরিবর্তন ঘটলো? আসুন সেই বিষয়ের দিকে আসা যাক। এই নোংরা পরিবেশকে এক অভিনব কায়দায় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করা হয়েছে। তবে কিভাবে সেটি করা হয়েছে তা জেনে নিন। এই বিষয়টি সম্পর্কে জানিয়েছেন বিমানবন্দরের দায়িত্বরত ম্যাজিস্ট্রেট আবু ইউসুফ। ফেসবুকে তিনি জানিয়েছেন ঠিক এভাবে:

পূর্বে…

– কফির দাম কত?
– ৩০ টাকা
– নিন ৩০, এক কাপ দিন
ফলাফল-

বর্তমানে…

– কফির দাম কত?
– ৩৫ টাকা। তবে কফি খেয়ে কাপ ফেরত দিলে ৫ টাকা ফেরত পাবেন। অথবা কফি খাওয়ার পর কাপসহ ৩০ টাকা দিলে হবে।
– দিন এক কাপ
খাওয়া শেষ করে,
– এই নেন কাপ, এই নেন ৩০
ফলাফলঃ

ম্যাজিস্ট্রেট ইউসুফ আরও লিখেছেন যে, কফি দিয়ে উদাহরণ দিলাম মাত্র। সব পানীয় ও খাবার আইটেমের জন্য নিয়ম একই। কেও ৫ টাকা বেশি দিয়ে কিনে নিয়ে আবর্জনা যত্রতত্র ফেলে রেখে চলে গেলে অন্য কেও কিংবা পরিচ্ছন্ন কর্মীরা তা সংশ্লিষ্ট দোকানে জমা দিয়ে পিস হিসেবে টাকা নিয়ে নেবে।

এই হলো বিমানবন্দরের ‘ময়লা দিন টাকা নিন’ প্রজেক্টের ট্রিক্স। আসলে শ্লোগানটি হতো, ময়লা জমা দিন এবং আপনার টাকা ফেরত নিন। তবে এই কইলে মাইর খাইয়া প্রজেক্ট রাইখা আমারে ভাগতে হইতো।

ইউসুফের এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন বিমানবন্দরের কর্মীরাও। সোশ্যাল মিডিয়াতেও আলোড়ন ফেলেছে ‘ময়লা দিন টাকা নিন’ উদ্যোগকে। পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন পরিবেশ বজায় রাখার জন্য এমন একটি উদ্যোগকে সকলেই স্বাগত জানিয়েছেন। এখন বিদেশীরা আমাদের দেশে প্রবেশের প্রাক্কালেই বুঝবে আমরা পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন জাতি। আসুন আমরা নোংরা পরিবেশকে পরিহার করি।

Loading...