বিলাসবহুল হোটেল হলো সৌদি প্রিন্সদের কারাগার!

সৌদি আরবের রিয়াদে অবস্থিত বিলাসবহুল রিটজ-কার্লটন হোটেল

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ হঠাৎ করেই বিশ্বের কট্টর পন্থি মুসলিম দেশ হিসেবে খ্যাত সৌদি আরবের পরিস্থিতি যেনো পাল্টে গেছে। কট্টর নীতি থেকে সরে আসা সৌদি আরবে প্রিন্স ও মন্ত্রীদের গ্রেফতার যেনো এখন নিত্যদিনের কাহিনী হিসেবে পরিণত হয়েছে। যে কারণে বিলাসবহুল একটি হোটেল হলো এবার সৌদি প্রিন্সদের কারাগার!

সে কারণে শনিবার রাত ১১টায় সৌদি আরবের রিয়াদে অবস্থিত বিলাসবহুল রিটজ-কার্লটন হোটেলের অতিথিদের এক বিড়ম্বনার মধ্যে পড়তে হয়েছে। হোটেলটিতে থাকা ব্যবসায়ী, বিনিয়োগকারী এবং অতিথিদের অনেকেই তখন রাতের খাবার খাচ্ছিলেন। হঠাৎই তাদের নিজেদের তল্পিতল্পা নিয়ে হোটেলের লবিতে জড়ো হতে বলেন হোটেল কর্তৃপক্ষ। এর কারণ জানতেন না হোটেলে থাকা অতিথিরা কেওই। মধ্যরাতে এই ধরনের আকস্মিক বিড়ম্বনার জন্য মোটেও প্রস্তুত ছিলেন না তারা।

সৌদি আরবের পুলিশ কর্মকর্তারা তাদের জানান যে, এই হোটেলে দেশটিতে সম্প্রতি আটক হওয়া ব্যক্তিদের রাখা হবে। হোটেলের অতিথিরা তাদের লাগেজ নিয়ে শেষ পর্যন্ত অন্য হোটেলের পথে পা বাড়ালেন। এরপরই আটক হওয়া সৌদি প্রিন্স, মন্ত্রী এবং ব্যবসায়ীদের বহনকারী বাস হোটেলে প্রবেশ করে। এই ঘটনার মধ্যদিয়ে আধুনিক সৌদি আরবের ইতিহাসে তারা রাজকীয় কয়েদিতে পরিণত হলেন।

গত মঙ্গলবার সকালে ব্রিটেনের ডেইলি মেইল একটি ছবিও প্রকাশ করেছে। রিয়াদের বিলাসবহুল ওই হোটেলে আটক হওয়া রাজপুত্র এবং মন্ত্রীদের পাতলা গদির ওপর কম্বলমুড়ি দিয়ে ঘুমাতে দেখা গেছে। এদের মধ্যে রয়েছেন সৌদির শীর্ষ ধনী প্রিন্স আল-ওয়ালিদ বিন তালাল।

উল্লেখ্য, এক মাস পূর্বে প্রিন্স আল ওয়ালিদ ‘ভবিষ্যৎ বিনিয়োগ’ নিয়ে যে কক্ষে সম্মেলন করেছিলেন ঠিক সেই কক্ষের মেঝেতেই এখন ঘুমাচ্ছেন। রাজপুত্রদের আটকের আগে ৪৯২ কক্ষবিশিষ্ট এই হোটেলটি ১ ডিসেম্বর পর্যন্ত বরাদ্দও করা ছিল। তবে সৌদি রাজপরিবারের জরুরি নির্দেশনায় শনিবার সেটি হঠাৎ করেই সম্পূর্ণ খালি করে ফেলা হয়েছে।

Loading...