জ্যান্ত তেলাপোকা ব্যাগে নিয়ে বিমানবন্দরে ধরা পড়লেন এক দম্পতি!

নিয়মের কড়াকড়়ির কারণে অনেকেই বিমানবন্দরের নিরাপত্তাকর্মীদের চোখে ধুলো দিয়ে নিয়ে যেতে চান নানা ধরনের খাদ্য সামগ্রি বা অন্য কিছু!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ বিমান বন্দরে অনেক কিছুই ধরা হয়। তবে এবার ধরা পড়েছে জ্যান্ত আরশোলা! প্রায় ২০০ জ্যান্ত তেলাপোকা (আরশোলা) ব্যাগে নিয়ে বিমানবন্দরে ধরা পড়েছেন এক দম্পতি!

নিয়মের কড়াকড়়ির কারণে অনেকেই বিমানবন্দরের নিরাপত্তাকর্মীদের চোখে ধুলো দিয়ে নিয়ে যেতে চান নানা ধরনের খাদ্য সামগ্রি বা অন্য কিছু! তবে কাস্টমস কর্মীদের চোখে ধুলো দিতে চাইলেও শেষ পর্যন্ত হাতেনাতে ধরা পড়ে গেলেন এক বয়ষ্ক চীনা দম্পতি।

চীনা দৈনিক বেজিং ইয়ুথ ডেইলির বরাত দিয়ে সংবাদ মাধ্যম এক খবরে জানিয়েছে, ঘটনাটি ঘটেছে চীনের গুয়াংদংয়ের আন্তর্জাতিক বেইয়ুং বিমানবন্দরে। সম্প্রতি সেখানে এক বয়ষ্ক দম্পতির মালপত্র স্ক্যাণ করতে গিয়ে সন্দেহ হয় নিরাপত্তা কর্মীদের।

নিরাপত্তা কর্মী জু ইয়ুইয়ু বলেছেন, “ওই দম্পতির ছিল হাতে একটা সাদা প্লাস্টিকের ব্যাগ। ব্যাগটা স্ক্যাণ করতে গিয়ে দেখা যায়, ভিতরে কালো কালো কী যেনো নড়েচড়ে বেড়াচ্ছে। আমরা তখন ব্যাগটা খুলে দেখার সিদ্ধান্ত নিই”।

জু জানিয়েছেন, “সিদ্ধান্ত যে ভুল ছিল, তা জুয়ের এক সহকর্মিনী ব্যাগটা খুলেই বুঝতে পারি আমরা। ভালো করে ভিতরে উঁকি দেওয়ার পূর্বেই তার হাতে উঠে আসে একটা তেলাপোকা! আতঙ্কে প্রায় জ্ঞান হারাবার মতো অবস্থা হয়, ওই ব্যাগের মধ্যে নাকি ২০০ টার কাছাকাছি আরশোলা ছিলো।”

সঙ্গত কারণেই এরপর জেরার মুখে পড়তে হয় ওই চীনা দম্পতিকে। জেরায় বৃদ্ধ জানিয়েছেন, ওই আরশোলাগুলো প্রয়োজন তার স্ত্রীর ত্বক সুন্দর রাখার জন্য। তিনি এর বেশি কিছু না বললেও বৃদ্ধা খুলে বলেন বিষয়টি। চীনের প্রাচীন এক রূপচর্চা পদ্ধতি হলো, তেলাপোকা বেটে কোনো মলমের সঙ্গে মিশিয়ে মাখলে নাকি ত্বকে যৌবনের জেল্লা বহাল থাকে! সেই জন্যই ওই তেলাপোকাদের বাড়ি নিয়ে যাচ্ছিলেন!

অগত্যা বিমানে জীবন্ত প্রাণী নিয়ে যাওয়ার অনুমতি না থাকায় সাধের তেলাপোকাদের শেষ পর্যন্ত ফেলে রেখেই যাত্রা করতে হয় ওই দম্পতিকে। তবে ওই বিমানবন্দরের নিরাপত্তাকর্মীরা, বিশেষ করে ব্যাগ খুলে ফাঁপরে পড়েছিলেন যে মহিলা তিনি এখনও ঘটনার কথা ভেবে রয়েছেন ঘোর এক অস্বস্তি অবস্থায়!

Advertisements
Loading...