হাজার বছরের দূর্গের সন্ধান পাওয়া গেলো লেকের নিচে!

এই লেকটি দেখার জন্য পর্যটকরা বার বার ফিরে আসেন তুর্কিস্থানে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ হাজার বছর আগে যে দূর্গে মানুষের বাস ছিল এবার সেই হাজার বছরের দূর্গের সন্ধান পাওয়া গেলো লেকের নিচে! প্রাচীন এই দূর্গের সন্ধান মিলেছে তুর্কিস্থানে।

পর্যটকদের জন্য একটি মোহনীয় স্থান হলো লেক ভ্যান। এই লেকটি দেখার জন্য পর্যটকরা বার বার ফিরে আসেন তুর্কিস্থানে। এই লেকটির অপরূপ শোভা সত্যিই মুগ্ধ করে পর্যটকদের। এই লেকটির নীচেই সম্প্রতি আবিষ্কার হয়েছে একটি প্রাচীন দূর্গ!

প্রত্নতাত্ত্বিকরা জানিয়েছেন, এই দূর্গটি ৩ হাজার বছরের পুরোনো। তবে কয়েক হাজার বছরের পুরোনো হলেও এই দূর্গটি একেবারেই সুরক্ষিত রয়েছে। দূর্গটির কোনও অংশতেই কোনও ভাঙন পর্যন্ত দেখা দেয়নি বলে জানা গেছে। তুর্কির এই এলাকাতে উরাতু সভ্যতা ছিল ৩ হাজার বছর পূর্বে। ঐতিহাসিক গবেষকরা মনে করছেন, উরাতু সভ্যতার কোনও রাজা এই দূর্গটি তৈরি করেছিলেন।

তুর্কির এক বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক আন্ডারওয়াটার ফটোগ্রাফার ও ভিডিওগ্রাফারসহ সকলে এই দুর্গের খোঁজ শুরু করেন। ঐতিহাসিকবিদরা ধারণা করেছিলেন, এই সমুদ্রের গভীরেই কোনও এক প্রাচীন সভ্যতা লুকিয়ে আছে। সেই অনুমানের ভিত্তিতেই তদন্ত শুরু করে এই দূর্গটি আবিষ্কার করা হয়।

যদিও এতো বছরের পুরোনো দুর্গটি অক্ষত অবস্থায় আবিষ্কার করতে পেরে গবেষকরা খুবই উচ্ছসিত হয়েছেন। তারা এটিকে মিরাকেল ছাড়া কিছুই ভাবতে পারছেন না। গবেষকরা জানিয়েছেন, এই লেকের গভীরে এমন একটি ঐতিহাসিক দূর্গ থাকতে পারে সেটি তারা অনুমান করলেও পুরোপুরি নিশ্চিত ছিলেন না। তাই দীর্ঘ ১০ বছর ধরে এই লেকের বিভিন্ন জিনিস নিয়ে পরীক্ষা নিরীক্ষা চালিয়ে অবশেষে নিশ্চিত হয়েছিলেন এখানে একটি দূর্গ রয়েছে।

দূর্গটি উদ্ধারের পর তারা এই লেকটির নাম দিয়েছিলেন আপার সি। ওই গবেষক দলের বিশ্বাস, এই লেকের তলায় আরও ঐতিহাসিক রহস্যজনক জিনিস লুকিয়ে রয়েছে।

Advertisements
Loading...