বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু এক কাঠের ভবনের গল্প!

জাপানের রাজধানী টোকিওতে ৩৫০ মিটার উঁচু ৭০তলা ভবনটি নির্মাণের প্রস্তাব

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ অনেক উঁচু ভবনের কথা আমরা শুনেছি। তবে আজ রয়েছে বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু এক কাঠের ভবনের গল্প! যা শুনলে আপনিও বিস্মিত হবেন।

ডেইলি মেইলের এক খবরে বলা হয়েছে, পৃথিবীর সবচেয়ে উঁচু ওই কাঠের ভবন নির্মাণ করতে চলেছে জাপানের একটি কোম্পানি। ২০৪১ সালে নিজেদের ৩৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে এই ভবনটি নির্মাণের ঘোষণা দিয়েছে দেশটির সুমিতোমো ফরেস্ট্রি নামে একটি আর্কিটেক্ট কোম্পানি। জাপানের রাজধানী টোকিওতে ৩৫০ মিটার উঁচু ৭০তলা ভবনটি নির্মাণের প্রস্তাব দিয়েছে ওই কোম্পানি।

সংবাদ মাধ্যমকে সুমিতোমো ফরেস্ট্রি বলেছে, ডব্লিউ৩৫০ প্রকল্প নামে ৭০ তলাবিশিষ্ট ভবনটি নির্মাণে মাত্র ১০ শতাংশ স্টিল ব্যবহার করা হবে। বাকী অংশে প্রায় এক লাখ ৮০ হাজার ঘনমিটার স্থানীয় কাঠ ব্যবহৃত হবে। এই কাঠ দিয়ে প্রায় ১৮ হাজার বাড়ি নির্মাণ করা সম্ভব!

টোকিওতে নির্মিত এই ভবনে ৮ হাজার ঘর থাকবে। প্রতি তলার বারান্দায় বৃক্ষ এবং গাছ-লতাপাতাও থাকবে। সবুজ প্রকৃতির ছোঁয়া আনতেই এমনটি করা হবে বলে জানিয়েছে নির্মাতা প্রতিষ্ঠানটি।

যেহেতু জাপান ভূমিকম্পপ্রবণ দেশ। এখানে প্রায় সারাবছরই ভূমিকম্প হয়। তাই কম্পন নিয়ন্ত্রণে কাঠের ভেতরে নলের আকৃতির কিছু স্টিল ব্যবহার করা হবে। স্তম্ভগুলোও হবে স্টিলের। বাঁকানো টিউব স্ট্রাকচারে এমনভাবে ভবনটি নির্মাণ করা হবে, যে কারণে জাপানের স্বাভাবিক ভূমিকম্পগুলো মোকাবিলা করতে পারবে এই ভবনটি। ভূমিকম্প প্রবণতার কথা মাথায় রেখেই এই প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে ওই কোম্পানি।

৪ লাখ ৫৫ হাজার বর্গমিটার ফ্লোর পুরোটাই হবে কাঠের হবে। আলোয় পরিপূর্ণ অ্যাপার্টমেন্টগুলোতে অফিস এবং দোকানের ব্যবস্থাও থাকবে।

ভবনটি নির্মাণে ব্যয় ধরা হয়েছে ৫৬০ কোটি ডলার। একই আকারের প্রচলিত ভবন নির্মাণের চেয়ে এটির খরচ প্রায় দ্বিগুণ হবে বলে মনে করছে ওই কোম্পানি। ২০৪১ সালের মধ্যে এর নির্মাণকাজ শেষ করার পরিকল্পনা রয়েছে ওই কোম্পানিটির।

বিশ্বের অনেক স্থানেই কাঠ ব্যবহার করে তৈরি করা আকাশচুম্বি ভবন রয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের মিনিয়াপলিসে কাঠের তৈরি ১৮ তলা একটি অফিস ভবন রয়েছে। বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু কাঠের ভবনটি অবস্থিত ভ্যানকুভারে। শিক্ষার্থী বসবাসের জন্য নির্মিত ওই ভবনটি ৫৩ মিটার উঁচু!

Advertisements
Loading...