The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

নিরাপত্তার জন্য ২০ বছর ধরে মরুভূমিতে বসবাস!

১৯৯৭ সালের মে মাস হতে উত্তর পূর্ব অস্ট্রেলিয়ার রেস্টোরেশন দ্বীপে বসবাস করছেন

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ এমন কথা আগে আমরা কখনও শুনিনি। নিরাপত্তার জন্য কোনো ব্যক্তি বছরের পর বছর কাটাতে পারেন মরুভূমিতে। নিরাপত্তার জন্য ২০ বছর ধরে মরুভূমিতে বসবাস করছেন এক ব্যক্তি! খবরটি অনলাইন দুনিয়ায় এখন ভাইরাল।

নিরাপত্তার জন্য ২০ বছর ধরে মরুভূমিতে বসবাস! 1

দ্য সান এর এক খবরে বলা হয়েছে, ওই ব্যক্তির নাম ডেভিড গ্লাসিন। ৭৩ বছর বয়সী ডেভিড গ্লাসিন নিরাপত্তার জন্য ২০ বছর ধরে একাই বসবাস করছেন মরুভূমিতে।

এক সময় ডেভিড গ্লাসিন ছিলেন কোটিপতি। তিনি ১৯৯৭ সালের মে মাস হতে উত্তর পূর্ব অস্ট্রেলিয়ার রেস্টোরেশন দ্বীপে বসবাস করছেন। ১৯৮৭ সালে শেয়ার বাজার ধসের কারণে ভাগ্যের কাছে হেরে গিয়ে তিনি এই সিদ্ধান্ত নেন।

সাবেক গোল্ড মাইনিং টাইকন এবং ভূসম্পত্তিশালী ডেভিড গ্লাসিন একসময় অন্যতম সফল ব্যক্তি ছিলেন। তার সম্পদের পরিমাণ ছিল প্রায় ২৭ মিলিয়ন ডলারের মতো। বর্তমানে তিনি কাঠের তৈরি কুঁড়েঘরে বসবাস করেন। এই কুঁড়েঘরে তার একমাত্র সঙ্গী একটি কুকুর!

নিরাপত্তার জন্য ২০ বছর ধরে মরুভূমিতে বসবাস! 2

ডেভিড গ্লাসিন সংবাদ মাধ্যমকে বলেছেন, এখানে সাপ, মাকড়সা এমনকি কুমিরও রয়েছে। তারপরেও যখন আমি বিশ্বব্যাপী সন্ত্রাসী হামলার বিষয়ে শুনতে পাই তখন এই জায়গাটিকে তুলনামূলক আমার কাছে নিরাপদ মনে হয়। নিরাপত্তার জন্য এই জায়গাটিকে আমি ভালোবাসি। আপনার যতো বয়সই হোক বা বিছানায় পড়ে থাকেন না কেনো, এখানে আপনার হামলার কোনো ভয় নেই।

ডেভিড গ্লাসিন আরও বলেন, এখানেই আমি মরতে চাই। আমার কাছে এটি স্বর্গ। আমি যখন এখানে আসি তখন আমি অর্থের জন্য অসুস্থ ছিলাম। আসলে অর্থই মানুষকে অসুস্থ করে তোলে। এমনকি আমার বউও আমাকে ছেড়ে চলে যায়। আমি এখানে একজন সঙ্গী চাই, যে আমার সঙ্গে বসবাস করবে। বা একাধিক নারী যারা এখানে বসবাস করতে চায়।

নিরাপত্তার জন্য ২০ বছর ধরে মরুভূমিতে বসবাস! 3

বাস্তব জীবনের রবিনসন ক্রুসো বলা হচ্ছে ডেভিড গ্লাসিনকে। ইংরেজি লেখক ড্যানিয়েড ডিফো রচিত উপন্যাসে রবিনসন ক্রুসো প্রায় ২৮ বছর একটি নির্জন দ্বীপে একাকি বসবাস করেছিলেন। সেই চরিত্রটিই বাস্তব জীবনে ফিরে এসেছে ডেভিড গ্লাসিন হয়ে।

Loading...