The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

টয়লেট পেপার যখন প্রথম পুরস্কার!

খুব সামান্য জিনিস মনে হলেও এই উপাদানটি বর্তমানে অনেক দামী!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাস সঙ্কটের মুহূর্তে বিশ্বে মহামূল্যবানে পরিণত হয়েছে কী টয়লেট পেপার? খুব সামান্য জিনিস হলেও এটি এবার পুরস্কারের বস্তুতে পরিণত হয়েছে।

টয়লেট পেপার যখন প্রথম পুরস্কার! 1

অবস্থাদৃষ্টে যা দেখা যাচ্ছে যে, খুব সামান্য জিনিস মনে হলেও এই উপাদানটি বর্তমানে অনেক দামী! কেনোনা চুরি-ডাকাতি পর্যন্ত হচ্ছে টয়লেট পেপার, মজুদের হিড়িক পড়েছে অনেক রাষ্ট্রেই, মারামারিও হচ্ছে এটির জন্যই! শুধু তাই নয় এখন প্রতিযোগিতার প্রথম পুরস্কার দেওয়া হচ্ছে এই টয়লেট পেপার!

সংবাদ মাধ্যমের এক খবরে জানা যায়, মাত্র কিছু দিন পূর্বে হংকংয়ের একটি দোকানে টয়লেট পেপার ডাকাতি হয়েছে! পশ্চিমা সভ্য দেশের কোথাও কোথাও টয়লেট থেকেও নাকি চুরি হচ্ছে টয়লেট পেপার। শুধু তাই নয়, টয়লেট পেপার নিয়ে হাহাকার পড়ে গেছে জাপান, সিঙ্গাপুর, আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়াসহ বহু দেশে।

অস্ট্রেলিয়ায় সিডনির এক সুপারমার্কেটে সম্প্রতি টয়লেট পেপার কেনা নিয়ে এক রকম হাতাহাতিও বেঁধে গিয়েছিল। ছুরি নিয়ে হামলাও করে এক যুবক। শেষে ঝামেলা থামাতে পুলিশ ডাকতে হয়েছে। অবশেষে মার্কেট কর্তৃপক্ষ নিয়ম করে দিয়েছে যে, কোনো গ্রাহক ৪টির বেশি টয়লেট পেপার একবারে কিনতে পারবেন না।

দোকানে ঘাটতি, অনলাইনে দাম বেড়েছে ওই বিশেষ কাগজের। টয়লেট পেপার নিয়ে দেশটিতে যখন এমন এক অবস্থা, তখন সিডনির একটি রেডিও চ্যানেলে এক প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। সেই প্রতিযোগিতার প্রথম পুরস্কার হিসেবে দেওয়া হয় ৩টি টয়লেট পেপার রোল!

টয়লেট পেপারের এই ‘স্বর্ণযুগ’ মুহূর্তটির সাক্ষ্য হয়ে রইলো অস্ট্রেলিয়ার একটি সংবাদপত্র। তারা খবরের কাগজে সঙ্গে আলাদা করে আট পাতা সংযুক্ত করে দিয়েছে। তাতে কোন খবর লেখা নেই। শুধুমাত্র জলছাপ দেওয়া ওই পাতাগুলোর নীচে রয়েছে একটি বিশেষ বার্তা আর তা হলো- ‘টয়লেট পেপার হিসেবে ব্যবহার করুন!’

এখানেই শেষ হয়নি সংবাদ সংস্থাটি। নিজেরাই টুইটারে পোস্ট করেছে তাদের ওই অভিনব উদ্যোগের ভিডিওটি। ইতিমধ্যেই ৩ লাখের বেশি মানুষ ভিডিওটি দেখেছেন। হাজার হাজার লাইক- কমেন্টও পড়েছে তাতে। কেও কেও লিখেছেন- এই জন্যই কাগজটাকে এতো পছন্দ করি!

টয়লেট পেপারের এই কাণ্ডে সোশ্যাল মিডিয়ায় চলছে হাসি-মস্করাও। কেও কেও প্রেমিকাকে টয়লেট পেপার উপহার দিয়ে বিয়ের প্রস্তাবও দিচ্ছেন!

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

Loading...