The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

বিশেষ চমক থাকছে মাহিন্দ্রার নতুন গাড়িতে

এবারও নতুন এক মডেলের গাড়ি আনছে ভারতীয় এ খ্যাতিমান কোম্পানি

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ কয়েক বছর ধরেই আকর্ষণীয় সব মডেল বাজারে এনে গাড়িপ্রেমীদের কাছে নিজেদের অবস্থান আরও দৃঢ় রেখেছে দক্ষিণ এশিয়ার মাধ্যে জনপ্রিয় গাড়ি কোম্পানি মাহিন্দ্রা। বিশেষ চমক থাকছে মাহিন্দ্রার নতুন গাড়িতে।

বিশেষ চমক থাকছে মাহিন্দ্রার নতুন গাড়িতে 1

এবারও নতুন এক মডেলের গাড়ি আনছে ভারতীয় এ খ্যাতিমান কোম্পানি। আগামী অক্টোবরেই নতুন মডেলের গাড়িটি লঞ্চ করার ঘোষণা দিয়েছেন তারা। মনে করা হচ্ছে যে, গাড়িপ্রেমীদের কাছে এই গাড়ি যথেষ্ট জনপ্রিয় হয়ে উঠবে।

পিটিআই এর এক খবরে বলা হয়েছে, মাহিন্দ্রার নতুন গাড়ি থর লঞ্চ বাজারে ছাড়া হতে পারে আগামী ২ অক্টোবর। জানা যায়, এই গাড়ির এএক্স এবং এলএক্স সিরিজ লঞ্চ করা হবে। গত শনিবার গ্রাহকদের সামনে নতুন প্রজন্মের মাহিন্দ্রা থর উপস্থাপন করা হয়। ছোট্ট ও মজবুত হওয়ায় এই গাড়ি দুর্গম জায়গাতেও ব্যবহার করা সহজ হবে।

জানানো হয়েছে যে, ৬টি রঙে এই গাড়িটি পাওয়া যাবে। সেগুলো হলো রেড রেজ, মিস্টিক কপার, নেপলি ব্ল্যাক, অ্যাকুয়াম্যারিন, গ্যালাক্সি গ্রে ও রকি বিয়েজ। যে কারণে এই গাড়ি খুব সহজেই গ্রাহকদের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে সক্ষম হবে। এই গাড়িতে রয়েছে এলইডি হেডল্যাম্প। এটি গাড়ির লুক বেশ আকর্ষণীয় করে তুলবে। এছাড়াও এই গাড়ির পেছনেও রয়েছে এলইডি লাইট। এই গাড়ির চাকা অপেক্ষাকৃত আরও উন্নত মানের। যে কারণে যেকোনো দুর্গম জায়গাতেও যাওয়া যাবে। চাকার ক্ষেত্রে কোনো সমস্যাই হবে না। অর্থাৎ মনে করা হচ্ছে যে, কার্যত অ্যাডভেঞ্চারের জন্য আনা হচ্ছে এই গাড়িটি।

এই গাড়ির ভেতরটিও হবে যথেষ্ট আরামদায়ক। সিটগুলো অপেক্ষাকৃত বেশ বড়। যে কারণে আরোহীদের খুব একটা অসুবিধাই হবে না। পাশাপাশি পা ছড়িয়ে রাখার মতো যথেষ্ট জায়গাও রয়েছে এতে। কোনো রকম সমস্যাই হবে না। এছাড়াও এতে আরও রয়েছে ৭ ইঞ্চি টাচ স্ক্রিন ইনফোটেনমেন্ট। রয়েছে গাড়ির ক্লাইমেট কন্ট্রোল করার সুবিধাও। এমনকি রিমোট লক হতে শুরু করে ডুয়াল ফ্রন্ট এয়ারব্যাগ পার্কিং সেন্সর এবং স্পিড সতর্কতার সুবিধাও। সেইসঙ্গে রয়েছে অধিক উন্নত মানের ইঞ্জিন। জানা গেছে, ভারতের বাজারে এই গাড়ির দাম শুরু হতে পারে ১০ লাখ রুপি হতে।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

Loading...