গ্রাহকদের স্বার্থ রক্ষায় বিটিআরসি ॥ ভিন্ন ভিন্ন হারে কলচার্জ আদায় না করার নির্দেশ

ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ এবার গ্রাহকদের স্বার্থ রক্ষা করছে বিটিআরসি। মোবাইল ফোন গ্রাহকদের কাছ থেকে বিভিন্ন মিনিটে ভিন্ন ভিন্ন হারে কলচার্জ আদায় না করতে একটি নির্দেশনা জারি করেছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন-বিটিআরসি।

কলচার্জ বিষয়ে এ নির্দেশনাসহ মোট ৪টি নির্দেশনা দিয়েছে সংস্থাটি। আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে অপারেটরগুলোকে এ নির্দেশনা কার্যকর করতে হবে। বিভিন্ন অপারেটর প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় মিনিটের কলচার্জ পরবর্তী মিনিট থেকে বেশি হারে আদায় করছে- এমন অভিযোগের পর বিটিআরসি এ ব্যবস্থা নিল।

সমপ্রতি বিটিআরসি সিস্টেমস অ্যান্ড সার্ভিসেস বিভাগের পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. রকিবুল হাসান স্বাক্ষরিত এক নির্দেশনায় বলা হয়, ‘কোন নির্দিষ্ট প্যাকেজের সব মিনিটের এবং সব বিলিং সাইকেল (পালস) কলচার্জ (উক্ত প্যাকেজের মধ্যে) অনুরূপ হতে হবে অর্থাৎ বিভিন্ন মিনিটে ভিন্ন ভিন্ন রেটে কলচার্জ আদায় করা যাবে না।’ এ ছাড়া কমিশনের অনুমতি ছাড়া কোনরকম ফি বা কলচার্জ আদায় করা যাবে না। এবং এখন থেকে ১০ সেকেণ্ড পালস্‌ এর বেশি পালস্‌ ব্যবহার করা যাবে না বলেও উল্লেখ করা হয়েছে। এটি ১৫ আগস্ট পর্যন্ত সময় নির্ধারণ করেছিল বিটিআরসি কিন্তু মোবাইল অপারেটরগুলো সময় চাওয়াতে ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সময় বাড়ানো হয়েছে।

গ্রাহকদের কাছ থেকে কল সেটআপ/কল ইনিসিয়েশন বা এরকম ফি বা চার্জ আদায় না করতেও নির্দেশনা দিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা। এর বাইরে বিভিন্ন প্যাকেজ ঘোষণার ক্ষেত্রে অপারেটরদের প্রতি মিনিট কলচার্জ, বিলিং সাইকেল (পালস্‌) ও ভ্যাট আদায় বিষয়ক তথ্য বিজ্ঞাপনে সুস্পষ্টভাবে উল্লেখ করতে বলেছে প্রতিষ্ঠানটি।

উল্লেখ্য, দেশে বর্তমানে পাঁচটি জিএসএম ও একটি সিডিএমএ অপারেটর সেবা দিচ্ছে। বিটিআরসির হিসাবে বর্তমানে ৯ কোটির বেশি লোক মোবাইল ফোন ব্যবহার করছেন।

আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন

Loading...