১৫ ঘণ্টা মর্গে থাকা মৃত ঘোষিত শিশুটি কেঁদে উঠলো!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ১৫ ঘণ্টা মর্গে থাকা মৃত ঘোষিত শিশুটি কবরে দেওয়ার আগে কেঁদে উঠলো! চিকিৎসক বলে দিয়েছিলেন, ‘প্রাণ নেই’! এরপর গোটা একটা রাত ওই শিশুটি ছিল মর্গে!

child dead & cried

১৫ ঘণ্টা মর্গে থাকার অর্থ হলো হিম হয়ে যাওয়া। কারণ মর্গের তাপমাত্রা শুনলে ভয়ে আপনার হাড় জমে যাবে! শূন্যের ১২ ডিগ্রি সেলসিয়াস নীচে থাকে মর্গের তাপমাত্রা। সারারাত সেখানে থাকার পর সকাল হতে যখন তাকে কবর দেওয়ার জন্য নিয়ে যাওয়া হচ্ছে, সেই সময়েই হঠাৎ ধুকপুক করে উঠলো সেই একরত্তি দেড় মাসের শিশু কন্যার বুক! শিশুটির দেহে প্রাণ ফিরে এলো!

এই ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব চীনের ঝেজিয়াং প্রদেশের পানানে গত ৫ ফেব্রুয়ারি। স্থানীয় একটি টেলিভিশন চ্যানেল ওই খবর দিয়ে বলেছে, কবরস্থানের কর্মীরা যখন ওই শিশুটিকে কবর দেওয়ার তোড়জোড় করছিলেন, ঠিক তখন হঠাৎই সেই শিশুটি কেঁদে ওঠলো। সঙ্গে সঙ্গে তারা খবর পাঠান শিশুটির বাবা ও মাকে। তারা ছুটে আসেন কবরস্থানে। শিশুটিকে নিয়ে যান স্থানীয় একটি হাসপাতালে। সেখানে শিশুটিকে রাখা হয় ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে। শিশুটিকে দেখে চোখ একেবারে ছানাবড়া হয়ে গেছে পানান হাসপাতালের চিকিৎসকদের।

ওই হাসপাতালের এক চিকিৎসক বলেছেন, আমি জীবনে কখনও এমন ঘটনা দেখিনি। এটি মিরাক্‌ল! জানুয়ারি মাসে এই হাসপাতালেই জন্মেছিল এই শিশুটি। জন্মের সময়েও কিছু শারীরিক ত্রুটি থাকায় টানা ২৩ দিন সদ্যোজাতকে রাখা হয়েছিল ইনকিউবিটারে। হৃদ-স্পন্দন বন্ধ হয়ে যাওয়ায় গত ৪ ফেব্রুয়ারি শিশুটিকে ‘মৃত’ বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা।

Advertisements
Loading...