The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

বিশ্বের সবচেয়ে লম্বা পায়ের এক নারীর গল্প! [ভিডিও]

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ২০ বছর বয়সী এক নারী তার লম্বা পায়ের কারণে ইন্টারনেটের মাধ্যমে ব্যাপক খ্যাতি অর্জন করেছেন। লম্বা পায়ের ওই নারির নাম ডং লি।

tallest-feet

ডং লি চায়নার একজন মডেল। ডং লিয়ের শুধু পায়ের পরিমাপ হলো ৪৫ ইঞ্চি। যা গড়ে চায়নার একজন ৭ বছর বয়সী মেয়ের উচ্চতার সমান।

ডেইলি মেইল এর খবরে বলা হয়েছে, সুন্দর ও আকর্ষণীয় এই মডেল ডং লি’র উচ্চতা ৫ ফিট ১১ ইঞ্চি। ডং লি পূর্ব চায়নার আনহুই প্রভিন্সের মডেল। তিনি একজন প্রশিক্ষক হিসেবে সেখানে কাজ করেন। তার বাবা-মা তার মতোই অনেক লম্বা। সে কারণেই হয়তো তারও উচ্চতা বেশি।

মিস ডং সম্প্রতি ‘সুপার মডেল’ নামের এক জনপ্রিয় টেলিভিশন প্রোগ্রামে অংশ নেন । অনুষ্ঠানের বিচারকমণ্ডলী তার এরকম আশ্চর্যজনক ব্যক্তিত্ব দেখে অভিভূত হয়।

একজন ফ্যান তার ফটোগ্রাফ দেখে তাকে তার পায়ের বীমা করানোর পরামর্শ দিয়েছেন। ডং এর যখন মাত্র ১৫ বছর বয়স ছিলো, তখন তার উচ্চতা ছিল ৫ ফিট ৯ ইঞ্চি। তখন তার মা তাকে শিষ্টাচার ক্লাস করার জন্যে পাঠান। কারণ হলো, তার মা ডং এর ভঙ্গিমা নিয়ে বেশ চিন্তিত ছিলেন।

ডং বলেছেন, তিনি তার উচ্চতা তার বাবা এবং মায়ের কাছ থেকেই পেয়েছেন। তার বাবার উচ্চতা ৬ ফিট ১ ইঞ্চি, আর তার মায়ের উচ্চতা ৫ ফিট ৭ ইঞ্চি।

ডংয়ের বাবা-মা তাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন অধ্যাপক হবার জন্য উৎসাহিত করেন। তবে তিনি তার স্নাতক পাশ করার পর বেইজিং এর একটি মডেলিং প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের সিদ্ধান্ত নেন।পরবর্তীতে একটি মডেলিং এজেন্সিতে চুক্তিবদ্ধ হন ডং।

ডং লি সুপার মডেলে নাম লিখানোর পর পুরো চায়নাতে অনেক খ্যাতি অর্জন করেন। তখন তার নতুন করে নাম দেওয়া হয় “টুই টুই”। যার অর্থ হলো দীর্ঘ পা।

দেখুন ভিডিওটি

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...