যমজ সন্তান হওয়ার রহস্য জেনে নিন

যমজ সন্তান নিয়ে মানুষের কৌতূহলের শেষ নেই। অনেকেই জানতে চান এর রহস্য কি

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ যমজ সন্তান কেনো হয় তা কী আপনি জানেন? যদি না জেনে থাকেন তাহলে আজ জেনে নিন। কেনো যমজ সন্তান হয় সে বিষয়ে রয়েছে একটি প্রতিবেদন।

যমজ সন্তান নিয়ে মানুষের কৌতূহলের শেষ নেই। অনেকেই জানতে চান এর রহস্য কি। তবে যমজ সন্তান নিয়ে রহস্যের বা গবেষণার কিছুই নেই। গর্ভে একের অধিক সন্তানধারণ করা অস্বাভাবিক কিছুই নয়। অনেক ক্ষেত্রে বংশগত কারণেও এটি হতে পারে যেমন-মা বা নানি, যদি পূর্বে কখনও যমজ সন্তান জন্ম দিয়ে থাকেন। এটি প্রকৃতি প্রদত্ত কিংবা গড গিফটেট বলা যেতেই পারে।

কেনো হয় যমজ সন্তান

তারপরও প্রশ্ন আসতে পারে কেনো যমজ সন্তান হয়। আমাদের দেহে সাধারণত একই সময় একটি মাত্র ডিম্বাণু দুটি ডিম্বাশয়ের যে কোনো একটি হতে নির্গত হয়। যদি দুটি ডিম্বাশয় থেকেই একটি করে ডিম্বাণু একই সময় গর্ভে নির্গত হয়, তবে ওভ্যুলেশন পিরিয়ডে তার শরীরে দুটি ডিম্বাণু থাকে। এই সময় মিলন হলে পুরুষের শুক্রানু উভয় ডিম্বাণুকেই নিষিক্ত করে থাকে। একটি নিষিক্ত ডিম্বাণু প্রথমে দুটি পৃথক কোষে বিভক্ত হয়ে থাকে। পরবর্তী সময় প্রতিটি কোষ হতে একেকটি শিশুর জন্ম হয়।

বলা প্রয়োজন যে, এখানে যেহেতু দুটি কোষ পূর্বে একটি কোষ ছিল, তাই এদের সব জীনগুলো একই হয়ে থাকে। সে কারণে এরা দেখতে অভিন্ন হয় ও একই লিঙ্গের হয়। এভাবেই নন-আইডেন্টিক্যাল টুইন শিশুর জন্ম হয়ে থাকে। এসব শিশু সব সময় একই লিঙ্গের হবে এমনটি না-ও হতে পারে। আবার তারা দেখতে ভিন্নও হতে পারে।

সন্তান যমজ কিনা তা বুঝার উপায়

গর্ভবর্তীর বেশি বেশি শরীর খারাপ এবং গর্ভাবস্থায় পেটের আয়তন স্বাভাবিক তুলনায় বেশ বেড়ে যাওয়া। তাছাড়া এখন আধুনিক অনেক ব্যবস্থা রয়েছে যেমন- গর্ভের সন্তান যমজ কিনা, জানতে দুই মাস পর আল্ট্রা সনো করে জেনে নিতে পারেন।

Advertisements
Loading...