free web tracker
শেয়ার করুন:

ঢাকা টাইমস্‌ রিপোর্ট ॥ আরও ৫টি গ্যাসকূপ খননের কাজ শেষ করেছে শেভরন ও বাপেক্স। কিন্তু কি পরিমাণ গ্যাস পাওয়া গেছে সে সম্পর্কে কিছুই জানায় সংশ্লিষ্টরা। অপরদিকে আরও ১৬টি গ্যাসকূপ খননের কাজ অক্টোবর নাগাদ শেষ হবে।

জানা গেছে, শেভরন ও বাপেক্স ৫টি গ্যাসকূপ খনন কাজ সফলভাবে সম্পন্ন করেছে। এর মধ্যে মৌলভীবাজারের জাগছড়ায় এমবি-৯ নম্বর কূপে ২০ জুলাই কোন আনুষ্ঠানিকতা ছাড়াই উৎপাদন শুরু করেছে শেভরন। এ কূপে কি পরিমাণ গ্যাস পাওয়া গেছে এবং দৈনিক কি পরিমাণ গ্যাস উত্তোলন করে জাতীয় গ্রিডে সরবরাহ করা হচ্ছে তা জানাতে পারেননি শেভরনের এক কর্মকতা। মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের ফুলবাড়ী চা বাগানে এমবি-৭ নম্বর ও নুরজাহান চা বাগান এলাকায় এমবি-৮ নম্বর নামে গ্যাসকূপের খনন কাজ শেষ করেছে শেভরন এ দুটি কূপ থেকেও গ্যাস উত্তোলন শুরু হতে পারে বলে জানিয়েছেন ওই কর্মকর্তা।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, নবীগঞ্জের বিবিয়ানা, বাহুবলের রশীদপুর ও ব্রহ্মণবাড়িয়ায় আরও ১৬টি গ্যাসকূপ খননের কাজ অক্টোবর নাগাদ শেভরন, বাপেক্স ও গ্যাসপ্রোম শুরু করবে। নবীগঞ্জের বিবিয়ানায় একটিতে শেভরন এবং বাহুবলের রশীদপুরে একটি কূপের খনন কাজ শেষ করেছে বাপেক্স। রশীদপুরের কূপ থেকেও শিগগিরই গ্যাস উত্তোলন শুরু হবে বলে জানিয়েছেন গ্যাসকূপের উপপরিচালক প্রকৌশলী ফারুক হোসেন। তিনি আরও জানান, রশীদপুরে আরও তিনটি কূপ খনন করা হবে। পেট্রোবাংলার তত্ত্বাবধানে রাশিয়ান কোম্পানি গ্যাসপ্রোম রশীদপুরে মূল কূপের অদূরে আরও তিনটিসহ মোট ৫টি কূপ খনন শুরু করবে শিগগিরই। এ জন্য সিসমিক জরিপ সম্পন্ন হয়েছে। আলাপকালে ওই কর্মকর্তা বলেন, রশীদপুরে নতুন তিনটি কূপ ছাড়াও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার তিতাসে আরও ৪টি কূপ খনন করবে গ্যাসপ্রোম। প্রস্তাবিত এসব গ্যাসক্ষেত্র খননের স্থান নির্ধারণসহ ড্রিলিং কাজ শুরুর চূড়ান্ত প্রস্ততি প্রায় শেষ। তবে বিবিয়ানায় আরও বেশ কয়েকটি কূপ খনন করার প্রস্তুতি থাকলেও প্রথম পর্যায়ে কমপক্ষে ৮টি কূপ খনন করা হতে পারে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে। এই গ্যাসকূপগুলোর মধ্যে অন্তত ৮টি খনন করবে মার্কিন কোম্পানি শেভরন এবং ৮টি করবে পেট্রোবাংলার মাধ্যমে রাশিয়ান কোম্পানি গ্যাসপ্রোম ও বাপেক্স। এক প্রশ্নের জবাবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক শেভরন বাংলাদেশ লিমিটেডের এক কর্মকর্তা জানান, আপাতত বিবিয়ানার বাইরে অন্য কোথাও গ্যাসকূপ খননের পরিকল্পনা তাদের নেই। ওই কর্মকর্তা বলেন, ৩০ জুলাই ঢাকায় হোটেল রূপসী বাংলায় শেভরন বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট জিওফ স্ট্রং নবীগঞ্জের বিবিয়ানা গ্যাসকূপের সম্প্রসারণ প্রকল্পে ৫০ কোটি মার্কিন ডলার বিনিয়োগের ঘোষণা দেয়ার পর সেখানে কাজের গতি কয়েকগুণ বেড়ে গেছে। ওই কর্মকর্তা বলেন, বিবিয়ানায় খননকৃত ১২টি কূপ থেকে দৈনিক গড়ে সাড়ে ৭০০ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস উত্তোলন করে জাতীয় গ্রিডে সরবরাহ করা হচ্ছে।

সমপ্রতি সরেজমিন পরিদর্শনকালে দেখা যায়, বিবিয়ানা গ্যাসকূপের অদূরে আউশকান্দি বাজারের উত্তর-পশ্চিম ও উত্তর-পূর্বে এবং বিবিয়ানা কূপের পাশের একাধিক স্থানে কূপ খননের প্রস্তুতি চলছে। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ব্রহ্মণবাড়িয়ায় আরও ৪টি কূপ খনন করবে রাশিয়ান কোম্পানি গ্যাসপ্রোম ও বাপেক্স। নবীগঞ্জের বিবিয়ানা গ্যাসকূপের আওতাধীন পৃথক স্থানে আরও তিনটি গ্যাসকূপ খনন শুরু হবে। মার্কিন কোম্পানি শেভরন চলতি বছরের মধ্যে এসব কূপ খননের প্রস্তুতি নিয়েছে। এর মধ্যে ১নং কূপটি সাউথ সাউথ নামে ২নং কূপটি ইনাতগঞ্জে, ৩নং কূপটি খনন করা হবে নবীগঞ্জের বখতিয়ারপুর গ্রামের কাছে এবং ৪, ৫, ৬, ৭ ও ৮নং কূপ বিভিন্ন নামে খনন করা হবে বিবিয়ানা মূল কূপের অদূরে এবং হীরাগঞ্জ বাজারের উত্তর-পূর্বাংশে ও উত্তর-পশ্চিমাংশে।

একের পর এক গ্যাস ক্ষেত্র আবিষ্কার ও নতুন করে গ্যাস উত্তোলন শুরু হলেও সারাদেশে গ্যাসের ঘটতি যেনো কমছে না। তাছাড়া পেট্রোবাংলা সারাদেশে গ্যাস সংযোগ পূনরায় খুলে দেওয়ার কথা বললেও এখনও কোন সিদ্ধান্ত নেয়নি। এমতাবস্থায় যেহেতু চাহিদা অনুযায়ী গ্যাস উত্তোলন শুরু হয়েছে। সেহেতু এখন নতুন সংযোগ বিশেষ করে বাসা-বাড়িতে গ্যাস সংযোগের অনুমতি দেওয়া প্রয়োজন বলে অভিজ্ঞ মহল মনে করেন।


সতর্কবার্তা:

বিনা অনুমতিতে দি ঢাকা টাইমস্‌ - এর কন্টেন্ট ব্যবহার আইনগত অপরাধ, যে কোন ধরনের কপি-পেস্ট কঠোরভাবে নিষিদ্ধ, এবং কপিরাইট আইনে বিচার যোগ্য!

বিষয়:
August 7, 2012 তারিখে প্রকাশিত


118 জন মন্তব্য করেছেন

মন্তব্য লিখতে লগইন করুন

আপনি হয়তো নিচের লেখাগুলোও পছন্দ করবেন

বাংলাদেশ-ভারত অভিন্ন মুদ্রা চালু নিয়ে তুমুল বিতর্ক
আন্তর্জাতিক অর্থনীতি: একীভূত হলো বিশ্বখ্যাত লাফার্জ ও হোলসিম সিমেন্ট কোম্পানি
বাংলাদেশ যুদ্ধজাহাজ রপ্তানি করবে
অর্থনীতিতে পড়বে ব্যাপক প্রভাব: আবারও বাড়ছে বিদ্যুতের দাম
সফল উদ্যোক্তা: বায়োগ্যাস প্ল্যান্টের মাধ্যমে গ্যাস ও বিদ্যুৎ চাহিদা পূরণ করে স্বাবলম্বী দুই ভাই
কৃষকদের বাঁচাতে আলু রফতানির উদ্যোগ
ঘরে বসে করার মত দশটি কাজ
উৎপাদনে ব্যাপক প্রভাব পড়ার আশংকা: আলু ক্ষেতে লেট ব্লাইট রোগের প্রাদুর্ভাব
জ্বালানি তেল সংকট: বোরো চাষ ব্যাহত ও যানবাহন বন্ধ হয়ে যাওয়ার আশংকা
হরতাল-অবরোধের কারণে জিনিসপত্রের দাম বাড়ছে: পেঁয়াজের কেজি ১৫০ টাকা!
টাঙ্গাইলের তাঁতের শাড়ি বিশ্বব্যাপী জনপ্রিয়
অবরোধের প্রভাব বাজারে ॥ কাঁচা বাজারসহ নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের দাম বাড়ছে
E
Close You have to login

Login With Facebook
Facility of Account