মোহাম্মদ আশরাফুল ডাক পেয়েছেন বাংলাদেশ ‘এ’ দলে

জাতীয় লিগের আগে ক্রিকেটারদের ঝালিয়ে নেবার ভালো মঞ্চ হবে এটি

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ জাতীয় দলের পাইপলাইন শক্ত করতে এবার যেন নড়েচড়ে বসেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। যার ফলশ্রুতিতে জাতীয় দলের আশেপাশে থাকা ক্রিকেটারদের নিয়ে এরই মধ্যে ভিন্ন ভিন্ন কর্মসূচির আয়োজন করছে বিসিবি। তার মধ্যে দুটো হলো বোর্ডের হাই পারফরম্যান্স (এইচপি) ইউনিট ও বাংলাদেশ ‘এ’ দল। সেই দুই দলের মধ্যে একটা ম্যাচের জন্য, ‘এ’ দলের হয়ে ডাক পেয়েছেন সাজা স্বরূপ দীর্ঘদিন ক্রিকেট থেকে বাইরে থাকা মোহাম্মদ আশরাফুল।

জাতীয় দলে আশেপাশে থাকা ক্রিকেটারদের নিয়ে খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে একটি চারদিনের ম্যাচ। সেখানে ‘এ’ দল ও এইচপি ইউনিটের ক্রিকেটারদের মধ্যে হতে যাওয়া ম্যাচটিতে সুযোগ পেয়েছেন মোহাম্মদ আশরাফুল। আর এতেই জাতীয় দলে ফেরার স্বপ্নটা আরো একটু উজ্জ্বল হয়ে উঠলো এই ডানহাতি ব্যাটসম্যানের। ‘এ’ দলে আশরাফুল সতীর্থ হিসাবে পাচ্ছেন- তাসকিন আহমেদ, সৌম্য সরকার, ইমরুল কায়েস, মার্শাল আইয়ুব, আল আমিন ও নুরুল হাসান সোহানরদের।

জাতীয় লিগের আগে ক্রিকেটারদের ঝালিয়ে নেবার ভালো মঞ্চ হবে এটি। অন্যদিকে মোহাম্মদ আশরাফুলের জন্য নির্বাচকদের নজরে আসার বড় সুযোগ হবে এই চারদিনের টেস্ট ম্যাচ। মূলত জাতীয় দল থেকে বাদ পড়া ক্রিকেটার, ‘এ’ দলে থাকা ক্রিকেটার ও এইচপি টিমে থাকা সদস্যের সমন্বয়ে দুইটি দল গঠন করা হবে। সোমবার খুলনায় পৌঁছানোর কথা আছে স্কোয়াডে থাকা ক্রিকেটারদের। আর বৃহস্পতিবার শুরু হবে ম্যাচটি।

একনজরে এইচপি ক্যাম্পের ২৪ জন ক্রিকেটারঃ

সাইফ হাসান, সাদমান ইসলাম, নাঈম শেখ, মিজানুর রহমান, ফারদিন হোসেন অনি, রবিউল ইসলাম রবি ও আব্দুল মজিদ, জাকির হাসান, আফিফ হোসেন ধ্রুব, ইয়াসির আলী চৌধুরী, সাইফউদ্দিন, মাহিদুল ইসলাম অঙ্কন ও তৌহিদ হৃদয়, মেহেদী হাসান, আসিফ হাসান, নাঈম হাসান, তানভীর ইসলাম, মোহাম্মদ রিশাদ আহমেদ, কাজী অনিক ইসলাম, রবিউল হক, হাসান মাহমুদ, ইয়াসিন আরাফাত, সাঈদ খালেদ আহমেদ ও এবাদত হোসেন।

উল্লেখ্য, মোহাম্মদ আশরাফুলের উপর থেকে সব ধরনের নিষেধাজ্ঞা উঠে গেছে গত ১৩ই আগস্ট, তাইতো এবার জাতীয় দলে আবার ফিরতে মরিয়া এই ক্রিকেটার। যার জন্য করে যাচ্ছেন কঠোর অনুশীলন। বিপ টেস্টের ফলাফল ছিল সেটার একটি উদাহরণ। ১২ই সেপ্টেম্বর মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ‘বিপ টেস্ট’ দেন মোহাম্মদ আশরাফুলসহ ঢাকা মহানগরের ক্রিকেটাররা। এতে সবচেয়ে ভালো করেছিলেন পেসার রকিবুল, পেয়েছেন ১২.৪। দ্বিতীয় অবস্থানে ছিলেন মোহাম্মদ আশরাফুল, বিপ টেস্টে তিনি পেয়েছেন ১১.৪। এতোদিন জাতীয় দলের বাইরে থাকা একজন ক্রিকেটারের জন্য যা অনেকটা বিস্ময়কর!

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...