The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

শিম্পাঞ্জি নিজের ঘর নিজেই পরিষ্কার করে!

এমন একটি বিস্ময়কর ঘটনা ঘটেছে চীনের লিয়াওনিং প্রদেশের শেনইয়াং শহরে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ মানুষ যেমন নিজের ঘর নিজে পরিষ্কার করে ঠিক তেমনি এই শিম্পাঞ্জি নিজের ঘর নিজেই পরিষ্কার করে! এমন একটি খবর অনলাইন জগতে ভাইরাল।

শিম্পাঞ্জি নিজের ঘর নিজেই পরিষ্কার করে! 1

মানুষের থেকেও পশু-পাখিরা অনেক কিছুই রপ্ত করে। তারা মানুষের অনুকরণে সবকিছু করার চেষ্টা করে। তবে অন্য জীব-জন্তুর ক্ষেত্রে কিছুটা ভিন্নতা থাকলেও বানর বা শিম্পাঞ্জির মধ্যে এটি বেশিই লক্ষ্য করা যায়। পৃথিবীর সবচেয়ে বুদ্ধিমান পশু বলা হয় শিম্পাঞ্জিকে। বিভিন্ন সিনেমাতে আমরা শিম্পাঞ্জির যেসব কাজ করা দেখি সেগুলো যে বাস্তবেও হতে পারে তার প্রমাণ এবার পাওয়া গেলো। কারণ সিনেমা সব কিছুই বানোয়াট করা হয় বলেই আমাদের বিশ্বাস। কিন্তু বাস্তব জীবনে এটি হতে পারে তা আমরা কখনও ভাবিনি। এবার সত্যিই ঘটেছে এমন একটি বিস্ময়কর ঘটনা, যা আমাদের সত্যিই বিস্মিত করে। যেমন আজকের এই ঘটনা। মানুষ যেমন নিজের ঘর নিজে পরিষ্কার করে ঠিক তেমনি এই শিম্পাঞ্জি নিজের ঘর নিজেই পরিষ্কার করে! এমন একটি খবর অনলাইন জগতে ভাইরাল।

এমন একটি বিস্ময়কর ঘটনা ঘটেছে চীনের লিয়াওনিং প্রদেশের শেনইয়াং শহরে। সেখানকার চিড়িয়াখানায় অন্যদের সঙ্গে রয়েছে একটি ১৮ বছরের শিম্পাঞ্জি।

সম্প্রতি ওই শিম্পাঞ্জির এক কীর্তিতে মোহিত হয়েছে নেট দুনিয়া। হঠাৎই একদিন তাকে দেখা যায় যে, ঝাঁটা নিয়ে নিজের খাঁচা নিজেই পরিষ্কার করছে। খাঁচার ভিতরে ছড়িয়ে থাকা শুকনো পাতা এবং ডালপালা সুন্দর করে ঝাঁট দিয়ে এক পাশে জমা করছে এই শিম্পাঞ্জি!

এমন দৃশ্য দেখার পর চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে একটি ভিডিও করা হয়। পরবর্তীকালে সেই ভিডিওটি নিজেদের সোশ্যাল পেজে শেয়ারও করে চীনের সংবাদমাধ্যম সিজিটিএন।

শিম্পাঞ্জির এমন আচরণের কথা বলতে গিয়ে চিড়িয়াখানার এক সদস্য ওয়াং জিংজিং সংবাদ মাধ্যমকে এক প্রতিক্রিয়ায় বলেছেন, শিম্পাঞ্জিরা মানুষকে বিভিন্নভাবে অনুকরণ করে। ঝাঁটা দিয়ে যেভাবে খাঁচা পরিষ্কার করেছে ওই সদস্য, তা সে খুব মন দিয়েই দেখেছে। তারই প্রতিফলন ঘটেছে ওই শিম্পাঞ্জিটির কর্মের মধ্যে। ওয়াং জিংজিং আরও বলেন, খাঁচার কোনাগুলোও সে নিপুণভাবে ঝাঁড় দেয়।

ওই শিম্পাঞ্জিটির বয়স ১৮ বছর হলেও, তার মানসিক স্থিতি অনেকটা ৪ বছরের একটি মানব-শিশুর মতোই। সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট হওয়ার পরে লাফিয়ে লাফিয়ে বেড়েছে ওই ভিডিওর লাইক এবং কমেন্ট। মানুষজন বিস্মিত হয়েছেন শিম্পাঞ্জির এমন কাজ দেখে।

Loading...