The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

দৌড়ালে শিশুর বুদ্ধি বাড়ে!

দৌড়ালে তখন মানুষের শরীরের মাংসপেশি হতে ক্যাথাপসিন বি নামে একটি প্রোটিন বের হয়। আর এই প্রোটিন সরাসরি মস্তিষ্কে প্রবাহিত হয়। ক্যাথাপসিন বি নামে এই প্রোটিনেই লুকিয়ে রয়েছে বুদ্ধি বাড়ার এক রহস্য!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ শিশুকে শুধু বই পড়াচ্ছেন? স্কুল টিউশনেই ব্যস্ত রাখছেন সন্তানকে? তাহলে আপনি ভুল করছেন। এতে আপনার সন্তানের তেমন কোনো লাভই হচ্ছে না। আপনার সন্তানকে দৌড়াতে বলেন। তাহলে শরীর থাকবে ঝরঝরে, বাড়বে বুদ্ধিও!

দৌড়ালে শিশুর বুদ্ধি বাড়ে! 1

আমরা হয়তো মনে করি সব সময় পড়লেই বা বই-খাতায় মুখ গুঁজে থাকলেই বুদ্ধি বাড়ে। টিভির পর্দায় চোখ আটকে থাকলে আইকিউ বাড়ে। আমাদের এমন ধারণা পুরোপুরিভাবে ঠিক নয়। তবে বুদ্ধি বিকাশের একটা সুন্দর পথ রয়েছে আর সেটি হলো দৌড়।

বিশেষজ্ঞদের দাবি হলো, সাধারণত ৮ বছর বয়স পর্যন্ত বুদ্ধির বিকাশ ঘটে থাকে। চিকিত্সাশাস্ত্র বলে যে, একজন মানুষ খুব বেশি হলে তার বুদ্ধির মাত্র ২ শতাংশ ব্যবহার করতে পারেন।

আমেরিকার দ্য ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অন এজিং-এর গবেষণা বলেছে যে, দৌড়ালে তখন মানুষের শরীরের মাংসপেশি হতে ক্যাথাপসিন বি নামে একটি প্রোটিন বের হয়। আর এই প্রোটিন সরাসরি মস্তিষ্কে প্রবাহিত হয়। ক্যাথাপসিন বি নামে এই প্রোটিনেই লুকিয়ে রয়েছে বুদ্ধি বাড়ার এক রহস্য!

গবেষকদের দাবি হলো, ৪ মাস ধরে সপ্তাহে ২ হতে ৩ বার ২০ মিনিট করে দৌড়ালে পেশিতে ক্যাথাপসিন প্রোটিনের নি:সরণ ক্রমেই বাড়তে থাকে। রক্তে এর পরিমাণ তাত্পর্যপূর্ণভাবেই বৃদ্ধি পায়। এতে করে মস্তিষ্কের নিউরোজেনেসিসগুলি প্রভাবিত হয়। যে কারণে খুব সহজেই কেও অনেক জটিল কাজও করতে পারে। তাই গবেষকরা বলছেন, শিশুদের দৌড়ানের জন্য। এতে তাদের বুদ্ধি বাড়বে।

Loading...