The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

‘পরকীয়া’ বন্ধে ব্রুনাইয়ে ভয়াবহ শাস্তির বিধান!

মুসলিম অধ্যুষিত ব্রুনাইয়ে একাধিক বিষয়ে তারা অনেক ক্ষেত্রেই কঠোর শাস্তির আইন চালু করেছে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ সমকামী ও বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক বন্ধ করার লক্ষ্যে কঠিন শাস্তির বিধান চালু করতে চলেছে দ্বীপরাষ্ট্র ব্রুনাই। এই ধরনের অসামাজিক কার্যকলাপ বন্ধে পাথর মেরে মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের মতো ভয়াবহ শাস্তির বিধান চালু করছে দেশটি।

‘পরকীয়া’ বন্ধে ব্রুনাইয়ে ভয়াবহ শাস্তির বিধান! 1

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের জানায়, ব্রুনাইয়ের সংসদে নতুন আইন পাশ করানোর পর ৩ এপ্রিল হতেই এই শাস্তি কার্যকর হবে বলে ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

তবে ব্রুনাইয়ের অ্যাটর্নি জেনারেলের ওয়েবসাইটে এই রায় ঘোষণার পর হতে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল-সহ একাধিক আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠনগুলো এই আইনের তুমুল বিরোধিতা শুরু করেছে।

খবরে আরও বলা হয়, মুসলিম অধ্যুষিত ব্রুনাইয়ে একাধিক বিষয়ে তারা অনেক ক্ষেত্রেই কঠোর শাস্তির আইন চালু করেছে। মদ বিক্রি হতে মদ্যপান সবকিছুই নিষিদ্ধ সেখানে। তাছাড়াও আরও অনেক বিষয়েও নিষেধাজ্ঞা রয়েছে দেশটিতে।

এই বিষয়ে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল ব্রুনাইয়ের গবেষক ব়্যাচেল চো হাওয়ার্ড বলেছেন, ‘ব্রুনেই প্রশাসনের উচিত অবিলম্বে এই ভয়ংকর কালো আইন পাশ হওয়া স্থগিত করা। দণ্ডবিধি এমনভাবে করতে হবে যাতে করে মানবাধিকার লঙ্ঘন না করে।

উল্লেখ্য, এশিয়ার বোর্নিও দ্বীপাঞ্চলে একটি ছোট্ট রাষ্ট্র হলো এই ব্রুনাই। দেশটিতে ২০১৪ সাল হতে শরিয়াহ আইন চালু রয়েছে। প্রতিবেশী মুসলিম দেশ ইন্দোনেশিয়া ও মালয়েশিয়ার প্রভাবে ব্রুনাই এই শরিয়াহ আইন চালু করেছে।

Loading...