The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

আঁচিল জাতীয় সমস্যার কিছু ঘরোয়া সমাধান

ত্বকের সৌন্দর্য নষ্ট করার একটি বিশেষ বস্তুর নাম হচ্ছে আঁচিল

দি ঢাকা টাইমস ডেস্ক।। ত্বকের সৌন্দর্য নষ্ট করার একটি বিশেষ বস্তুর নাম হচ্ছে আঁচিল। যেকোন বয়সে আপনার শরীরে আঁচিল দেখা দিতে পারে। আর এটি এমন একটি বস্তু যা দীর্ঘদিন ধরে শরীরে থাকে। বিশেষ করে মুখে, হাতে বা শরীরের বাহ্যিক কোন অংশে আঁচিল হলে সৌন্দর্য নষ্ট হয়ে যায়। তখন নিজের কাছেই দেখতে খারাপ লাগে। আজ আমরা শরীরের আঁচিল দূর করার জন্য কিছু জাদুকরি ঘরোয়া টিপস সম্পর্কে জানবো।

১। রসুনঃ

রসুন কেবল মসলা হিসেবেই ব্যবহৃত হয় না। নানা রোগের বিশেষ ঔষুধ হিসেবেও রসুন ব্যবহার করা হয়। আঁচিল সমস্যার সমাধানের জন্য আপনি রসুন ব্যবহার করতে পারেন। রসুনের কোয়া বেঁটে আঁচিলের উপর কিছুক্ষন রেখে দিন, তারপর হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এভাবে ৫-৭ দিন করলেই আঁচিল ভাল হয়ে যাবে।

২। অ্যালোভেরাঃ

নানা ঔষুধিগুণে ভরা একটি প্রাকৃতিক উদ্ভিদের নাম হচ্ছে অ্যালোভেরা। আঁচিল দূর করার জন্য অ্যালোভেরা অনেক ভাল কাজ করে। একটি অ্যালোভেরা পাতার কিছু অংশ কেটে নিন। পাতার ভেতরে থাকা জেল আঁচিলের উপর ভাল করে লাগিয়ে দিন। ঘন্টা খানেক রেখে ধুয়ে ফেলুন। ৫-৭ দিন এভাবে জেল লাগালে আঁচিল এমনিতেই ঝরে যাবে।

৩। কলার খোসাঃ

কলার খোসা আমাদের ত্বকের জন্য দারুন উপকারি। যাদের ত্বক খসখসে, তারা কিছুদিন কলার খোসার ভেতরের অংশ মুখে মাখলে ত্বকের খসখসে ভাব দূর হয়ে যায়। সেই সাথে আঁচিল নিরাময়েও এটি বড় ধরণের অবদান রাখে। ত্বকের যে অংশে আঁচিল রয়েছে, সেখানে কয়েকদিন কলার খোসার ভেতরের অংশ ভাল করে ডোলতে হবে। এতে অল্প দিনের মধ্যেই আঁচিল ত্বক থেকে খোসে পরবে।

৪। টি ট্রি অয়েলঃ

টি ট্রি অয়েলকে এক প্রকার অ্যান্টিসেপটিকও বলতে পারেন। কারণ ত্বকের যে কোন ইনফেকশন দ্রুত দূর করতে এই অয়েল যথেষ্ট কার্যকরি। ত্বকের আঁচিল দূর করতে আপনি এই অয়েল ব্যবহার করতে পারেন। প্রথমে কিছু তুলো পানিতে ভিজিয়ে রাখুন। এখন ওই ভেজা তুলো টি ট্রি অয়েলে ভিজিয়ে নিয়ে আঁচিলের উপর লাগান। ১ ঘন্টা মত এভাবে রেখে দিন। তারপর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটি দিনে তিনবার ব্যবহার করলে খুব শিগ্রই ত্বক থেকে আঁচিল দূর হয়ে যাবে।

৫। পেঁয়াজের রসঃ

আঁচিল দূর করতে আপনি পেঁয়াজ ব্যবহার করতে পারেন। এর জন্য আপনাকে একটি মাঝারি সাইজের পেঁয়াজ কুচি করে কেটে নিতে হবে। এখন পেঁয়াজ কুচির সাথে আধা চামচ লবণ মিশিয়ে সারাদিন ঢাকনা দিয়ে আটকে রাখতে হবে। রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে এটি আঁচিলের উপর লাগিয়ে নিন। সকালে ঘুম থেকে উঠে কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। কয়েক রাত এভাবে ব্যবহার করলে আঁচিল দ্রুত সেরে যাবে।

৬। ডালিমের খোসাঃ

ডালিমের খোসা শুকিয়ে গুড়ো করে নিন। এখন ওই গুড়োর সাথে পরিমাণ মত লেবুর রস মিশিয়ে পেষ্ট করে নিন। রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে আঁচিল বাদ রেখে তার চারপাশে পেট্রোলিয়াম জেলী লাগিয়ে নিন। এখন আঁচিলের উপর এই মিশ্রণটি লাগিয়ে দিন। সকালে উঠে হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। কয়েক দিনের মধ্যেই আপনার আঁচিল সেরে যাবে।

৭। অ্যাপল সাইডার ভিনেগারঃ

অ্যাপল সাইডার ভিনেগার আঁচিল নিরাময়ের জন্য খুবই কার্যকরি। একটি তুলোর বল অ্যাপল সাইডার ভিনেগারে ভিজিয়ে নিন। এখন রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে আঁচিল বাদ রেখে তার চারপাশে পেট্রোলিয়াম জেলী লাগিয়ে নিন। তারপর ওই আঁচিলের উপর ভেজা তুলো রেখে নরম কাপড় দিয়ে বেঁধে রাখুন। সকালে তুলো সরিয়ে হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এভাবে ৪-৫ দিন করলেই আঁচিল দ্রুত ঝরে যাবে।

আপনি যদি আঁচিল জাতীয় সমস্যায় ভুগে থাকেন, তবে দ্রুত যেকোন একটি উপায় প্রয়োগ করা শুরু করে দিন। আশা করি দ্রুত আঁচিল নিরাময় করে আপনার ত্বকের সৌন্দর্য ফিরিয়ে আনতে পারবেন।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...