The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

আপনি কী ১ লাখ ৮৫ হাজার টাকা বেতনের চাকরি চান?

সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়ে যেতে হবে ঠিক পথে। ভুল সিদ্ধান্ত নিলেই মহা বিপদ!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ আপনি কী ১ লাখ ৮৫ হাজার টাকা বেতনের চাকরি চান? তাহলে আপনাকে বেশ কিছু নিয়ম মেনে চলতে হবে। তাহলেই আপনি পেতে পারেন ১ লাখ ৮৫ হাজার টাকা বেতনের চাকরি!

আপনি কী ১ লাখ ৮৫ হাজার টাকা বেতনের চাকরি চান? 1

চাকরি। সেটি সবার জীবনে ঠিকঠাকভাে জোটে না। আর একটি বিষয় হলো মানুষের জীবনে সবচেয়ে কঠিন এবং গুরুত্বপূর্ণ কাজগুলোর মধ্যে একটি হলো কোনো বিষয় সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা। একটা ভালো সিদ্ধান্ত যেমন আপনার জীবনটাকে পালটে দিতে পারে, ঠিক তেমনি আপনার জীবনকে অতিষ্টও করে দেবার জন্য একটা ভুল সিদ্ধান্তই যথেষ্ট হতে পারে কোনো কোনো সময়।

সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়ে যেতে হবে ঠিক পথে। ভুল সিদ্ধান্ত নিলেই মহা বিপদ। ঠিক সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষমতা রয়েছে আপনার? যদি থাকে তবে আর তেমন কিছুই চাই না। এই যোগ্যতাতেই পেতে পারেন ১ লাখ ‌৮৫ হাজার টাকা বেতনের চাকরি!

এটি আমাদের দেশের বিষয় নয়, ইংল্যান্ডের ব্রিস্টলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক মহিলা একটি জনপ্রিয় ওয়েবসাইটে এমনই একটি বিজ্ঞাপন দিয়েছেন।

ওই নারী জানিয়েছেন যে, গত বছর নিজ থেকে নেওয়া তার কোনো সিদ্ধান্তই ঠিক হয়নি। উল্টো নানা বিপদে পড়েছেন তিনি। কখনও নিউজিল্যান্ডে গিয়ে টাকা-পয়সা খুইয়েছেন। আবার কখনও ভুল সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছেন। তাই তিনি এই অভিনব পন্থা বেছে নেন।

আসলে কোন সময় কোন সিদ্ধান্ত নিলে ঠিক হবে, কোন কাজটি আপনার করা উচিত হবে, বা কোনটি অনুচিত-‌‌ ওই নারী হয়ে এরকমই সব সিদ্ধান্ত নিতে হবে আপনাকেও। এর জন্যই আপনি পেতে পারেন মাসে ২০০০ পাউন্ড বা বাংলাদেশী টাকায় ১ লাখ ‌৮৫ হাজার টাকা।

ওই নারী জানিয়েছেন, আমার মা পর্যন্ত এই বিষয়টি নিয়ে মজা করে থাকেন। প্রত্যেক সপ্তাহেই আমি কিছু না কিছু ভুল সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলি। পরে সেটি নিয়ে অনুতাপ করতে হয় আমাকে।‌

সে জন্যই তিনি একজন ঠিক মানুষকে খুঁজছেন যিনি সব বিষয়ে সঠিক সময় সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে তাকে সাহায্য করবেন। আপনার কাজ শুধু ওই একটিই, প্রতিমূহূর্তেই ওই মহিলার মেসেজের উত্তর আপনাকে দিতে হবে। সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে তাকে সাহায্য করতে হবে।

আপাতত মাত্র এক মাসের জন্য তিনি ওই ব্যক্তির সাহায্য নিতে চান। পরে সবকিছু ঠিকঠাক চললে তিনি তাকে এই কাজে স্থায়ীভাবেও রেখে দিতে পারেন বলে জানিয়েছেন। তাহলে আর কী? একবার দেখুন এমন পরামর্শ দাতার কাজটি আপনি করবেন কি না!

Loading...