The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

কিভাবে কানের ব্যাথা থেকে উপশম পাবেন

কান আমাদের শরীরের এমন একটি অংশ যা আমাদের শরীরকে পরিপূর্ণতা দান করে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ কান আমাদের শরীরের একটি বিশেষ ইন্দ্রিয় বা গুরুত্বপূর্ণ অংশ। কান আমাদের শ্রবণ ক্ষমতা দান করে থাকে। কোন কিছু শুনতে কান এর কোন বিকল্প নেই।

কিভাবে কানের ব্যাথা থেকে উপশম পাবেন 1

কান আমাদের শরীরের এমন একটি অংশ যা আমাদের শরীরকে পরিপূর্ণতা দান করে থাকে যার ফলে আমরা কোন কিছু শুনতে পারি। কোন কিছুর উপস্থিতিকে অনুভব করতে কান আমাদের বিভিন্নভাবে ইঙ্গিত প্রদান করে থাকে। যার ফলে কান আমাদের শরীরের একটি সর্ব গুরুত্বপূর্ণ ও অন্যতম সংবেদনশীল অংশে পরিণত হয়েছে। আবার এই কানেরই রয়েছে নানাবিধ সমস্যা, নানারকম কানের জটিলতায় আমরা অনেকেই দিনের পর দিন ভুগতে থাকি তার মধ্যে অন্যতম হচ্ছে কানের ব্যথা।

আমাদের মাঝে অনেকেই কানের ব্যথার পাশাপাশি কানের নানান জটিলতায় ভুগে থাকি। নানাবিধ কারণে কানের ব্যথা হতে পারে এই কানের ব্যাথার বিভিন্ন ধরনের কারণসমূহ জানার পরে এর সঠিক চিকিৎসা করা সম্ভব। তাহলে আমাদের প্রত্যেকের কানের ব্যথার কারণ সম্পর্কে আরো সচেতন হতে হবে যার ফলে আমরা সঠিক চিকিৎসার মাধ্যমে নিজেদের কানকে সুস্থ রাখতে সক্ষম হতে পারি। কানের ব্যথার অন্যতম একটি কারণ হলো কানের ইনফেকশন। আমাদের কান ভারী ভারী লাগা, কানের প্রচন্ড ব্যথা হওয়ার পেছনে কানে ইনফেকশন বিভিন্নভাবে দায়ী হয়ে থাকে। কানে ইনফেকশন যেকোনো সময় যেকোনো ভাবে হতে পারে। সারা বছর কানের মধ্যে ইনফেকশন হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। আমরা অনেকেই ধারণা করে থাকি শুধুমাত্র শীতকালেই ঠান্ডা লেগে কানে ইনফেকশন হয়ে থাকে আসলে তা সম্পূর্ণ ভুল। কানের সঠিক চিকিৎসার ক্ষেত্রে আমাদেরকে কানের ইনফেকশন হওয়ার কারণ সম্পর্কে ভালোভাবে জেনে নিতে হবে।

স্বাভাবিকভাবে ঠান্ডা লেগে গেলে নাকের সর্দি যখন উপড়ে কানের দিকে চলে যায় তখন ইনফেকশন হওয়ার ঝুঁকি বেড়ে যায়। আমরা অনেকেই কান পরিষ্কারের জন্য কটনবাট দিয়ে বা তার সাহায্যে কান পরিষ্কার করার চেষ্টা করে থাকি। যা আসলেই আমাদের জন্য খুবই বিপদজনক হতে পারে। কান পরিষ্কার করতে আমরা অনেকেই ইয়ার বাড ব্যবহার করে থাকি যার ফলে খুব সহজে কানে ব্যাকটেরিয়া প্রবেশ করতে পারে এবং ইনফেকশন করার সম্ভাবনা তখন লক্ষণীয় হারে বেড়ে যেতে পারে। যার ফলে এক্সটার্নাল ইয়ারে ফাংগাল ইনফেকশন হতে পারে। কানের এক্সটার্নাল ইয়ারে ফাংগাল ইনফেকশন খুবই ঝুঁকিপূর্ণ।

অতিরিক্ত কটনবাড ব্যবহারের ফলে আমাদের কানের ভিতরে ওয়্যাক্সের স্তর নষ্ট হয়ে যেতে পারে। কানের ভিতরে ওয়্যাক্সের স্তর কানের অন্দরমহলকে বাইরের ধুলাবালি থেকে কানকে রক্ষা করতে সক্ষম হয়। কানে ইনফেকশন হওয়ার ক্ষেত্রে বাচ্চাদের ইনফেকশন হওয়ার ঝুঁকি সবচেয়ে বেশি থাকে। আমাদের খেয়াল রাখতে হবে যাতে বাচ্চারা কোন কিছু নিয়ে খোঁচাখুঁচি না করে। বাচ্চাদের কানে ব্যথা হয়ে গেলে তাতে বেশি স্পর্শ না করাই শ্রেয়। অতিরিক্ত ব্যথার ক্ষেত্রে বাচ্চার কানে গরম ছ্যাকা দেওয়া যেতে পারে। আমাদের সকলকে লক্ষ্য রাখতে হবে কানের মধ্যে গরম তেল জাতীয় কোনো কিছু যাতে না দেয়া হয়। অতিরিক্ত ব্যথার ক্ষেত্রে অথবা ইনফেকশন বেড়ে গেলে দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ গ্রহণ করতে হবে। এছাড়া অনেক সময় কানে ব্যথার ক্ষেত্রে গরম পানির ভাপ নেয়া জেতে পারে তাতে কানের ব্যথা থেকে খুব সহজে উপশম লাভ করা যায়।

আমরা অনেকেই ইয়ারড্রপ ব্যবহার করে থাকি যা ব্যবহার করার ক্ষেত্রে এর ঠিক সময়সীমা সম্পর্কে অবগত হই না। ইয়ারড্রপ ব্যবহার করার ক্ষেত্রে আমাদের সকলকে সচেতন হতে হবে যাতে কোন পুরনো বারবার ইয়ারড্রপ ব্যবহার করা না হয়। মনে রাখতে হবে প্রত্যেকটি ওষুধের একটি নির্দিষ্ট বয়স সীমা থাকে। এছাড়া কানে আঙ্গুল দিয়ে খোঁচানো একটি খুবই খারাপ অভ্যাস যার ফলে নখ বড় থাকলে কানে ইনফেকশন হওয়ার আশঙ্কা বেড়ে যায়। আমাদের মাঝে অনেকেই আছেন যাদের কানে পানি ঢুকে গেলে ওই কানে পানি দিয়ে তা বের করার চেষ্টা করেন যা কোনোভাবেই উচিত নয়। সে ক্ষেত্রে নরম কাপড় দিয়ে যতটুকু সম্ভব মুছে দিতে হবে বাকিটা ঠিক নিজে নিজে বেরিয়ে আসবে।

বিশেষজ্ঞদের মতে কান পরিষ্কারের করার জন্য অতিরিক্ত কিছু করার প্রয়োজন নেই। কানকে নিজের মত থাকতে দেয়াটাই বুদ্ধিমানের কাজ।

Loading...