The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

লাগোসের বানানা দ্বীপ যেনো ধনীদের রাজ্য!

এটি দেশের সবচেয়ে ধনী এবং সর্বাধিক সুপরিচিত পরিবারগুলির দ্বারা জনবসতিপূর্ণ এক বিলিয়নেয়ারদের স্বর্গ

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ বানানা মূলত লাগোছের একটি ছোট্ট মনুষ্যনির্মিত মনোরম ও মনোমুগ্ধকর একটি দ্বীপ। এই বানানা দ্বীপটিতে রয়েছে ধনীদের বসবাস তা যেনো হয়ে উঠেছে পৃথিবীর সবচেয়ে ধনীদের বা দেশের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তিতের নিজস্ব প্যারাডাইসে।

লাগোসের বানানা দ্বীপ যেনো ধনীদের রাজ্য! 1

বানানা দ্বীপ, যা প্যারিসের সপ্তম অ্যারোনডিসমেন্টের নাইজেরিয়ার জবাব, সান ডিয়েগো’র লা জোলা, নিউ ইয়র্ক সিটির ট্রিবিকা এবং টোকিওর শিবুয়া এবং রোপঙ্গি, বিশিষ্ট একটি দ্বীপ যা লোগোসের ইকোই পাড়ার একটি ছোট্ট মনুষ্যনির্মিত একটি দ্বীপের মধ্যে অন্যতম।

এটি দেশের সবচেয়ে ধনী এবং সর্বাধিক সুপরিচিত পরিবারগুলির দ্বারা জনবসতিপূর্ণ এক বিলিয়নেয়ারদের স্বর্গ। এই বানানা দ্বিপটির সম্পূর্ণ নির্মাণ কাজ শেষ করা হয় ২০০০ সালে। এই দ্বিপে বসবাস করা সকল ধনিরা মূলত দেশের বৃহত্তম শহর এবং আর্থিক কেন্দ্র লগোসের কোলাহল এবং জনতার থেকে দূরে শান্ত, শান্তিপূর্ণ পরিবেশ উপভোগ করার লক্ষে এই বানানা দ্বিপে নিজেদের জন্য একটি মনোরম পরিবেশ তৈরি করে নিয়েছেন। এই দ্বিপটি দেখতে প্রায় একটি সুবিশাল কলার মত তার এই আকৃতির থেকেই এই দ্বিপের নামকরণ করা হয়েছে বানানা দ্বীপ। লাগোস লেগুনের ১.৬৩ মিলিয়ন বর্গমিটার বালু ভরা দ্বীপটি তাফওয়া বলওয়া স্কয়ারের পূর্ব থেকে লাওসের বাণিজ্যিক এবং আনুষ্ঠানিক হৃদয় থেকে ৫ মাইল পূর্বে কিছুটা দূরে অবস্থিত। একটি উত্সর্গীকৃত রাস্তা পার্কভিউ এস্টেটের নিকটবর্তী রাস্তার নেটওয়ার্কের সাথে এটি সংযুক্ত করে। এই দ্বিপে সকল প্রকার সুবিধার ফলে এই দ্বিপে বসবাস কৃত সকল জনগোষ্ঠী তাদের রুচি মতাবেক নিজেদের মত করে ভবন নির্মাণ করেছে।

তবে এইখানে জমি ক্রয় করতে হলে আপনাকে হতে হবে একটু বিলাসী বটে। দেশের অন্যান্য অংশের মতো, বানানা দ্বীপে রিয়েল এস্টেটের দামগুলি জমিটির মূল্যের উপর ভিত্তি করে, যা ম্যাডিংওয়া রিয়েল এস্টেটের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রবার্টা নুবুউয়ের মতে এনজিএন ৪০০০০ (প্রতি বর্গমিটার মার্কিন ডলার ১.১০১)। জনাব নুউউই আরো বলেছিলেন যে বিচ্ছিন্ন বাড়িগুলির দাম, বাজারে খুব কমই আসে কারণ দ্বীপে খুব বেশি কিছু নেই, এনজিএন ১ বিলিয়ন (মার্কিন $ ২.৭৫ মিলিয়ন) থেকে শুরু হয়। তিনি বলেন, বাজারে এখন সবচেয়ে ব্যয়বহুল তালিকা, এনজিএন ৫ বিলিয়ন, ২.৬০০ বর্গমিটার জমিতে ছয় শয়নকক্ষ বিশিষ্ট ঘরটির জন্যই মূলত এর চড়া দাম হাঁকানো হয়ে থাকে।

তিনি আরও যোগ করেন যে ফোর-বেডরুম, একক-পরিবার টেরেস/টাউনহাউসগুলি যা গড়ে ৪০০ বর্গমিটার এবং এক হাজার বর্গমিটার জমিতে সাধারণত এনজিএন ৩৫০ মিলিয়ন থেকে এনজিএন ৫০০ মিলিয়ন অবধি হয়। এই দপে মূলত দ্বীপে তিনটি বিশিষ্ট কন্ডো বিকাশ রয়েছে: ওশান প্যারেড টাওয়ারস, বেলা ভিস্তা টাওয়ারস এবং লেকপয়েন্ট অ্যাপার্টমেন্টস। এই বানানা দ্বিপে জমি এতই দুর্লভ এবং জমির দাম এত বেশি যে এইখানে চ্ছিন্ন একক পরিবারের বাড়িগুলির তুলনায় অনেক বেশি অ্যাপার্টমেন্ট এবং টেরেসের ঘর রয়েছে। এইখানে তিনটি কনডোর বিকাশের মধ্যে ওশান প্যারেডকে সর্বাধিক শীর্ষ স্থান হিসাবে বিবেচনা করা হয়, তিনি বলেছিলেন, এর অনেক সুযোগ-সুবিধার জন্য, যার মধ্যে রয়েছে টেনিস কোর্ট, একটি অলিম্পিক-আকারের পুল, দুটি জিম এবং শিশুদের অঞ্চল।

নাইজেরিয়ার ধনী ব্যক্তি ছাড়াও, বানানা দ্বীপে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেন, লেবানন, ভারত এবং ফ্রান্স থেকে বিভিন্ন প্রাক্তন প্যাট আঁকেন। এক বিশাল সংখ্যক লোক হলেন উচ্চবিত্তের ভাড়াটিয়া,” মিসেস ন্যুউবি বলেছিলেন। “একক-পরিবারের ঘরের বেশিরভাগ মালিক এখানে পুরো সময় বেঁচে থাকেন তবে তাদের মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রেও বাড়ি রয়েছে। এখানে বহুজাতিকের পাশাপাশি মেগা মোবাইল নেটওয়ার্ক অপারেটর গুলো রয়েছে এখানে রয়েছে এতিসালাত, রয়েছে এয়ারটেল ও নানাবিধ পোস্টপেইড ও প্রিপেড মোবাইল পরিষেবা। এখানে রয়েছে ফোরজি পরিষেবা। এছাড়া এই দ্বীপে আইনের সকল সংস্থা ও দপ্তরগুলো বিদ্যমান। এই দ্বিপটি তার নিজস্য সৌন্দর্যের পাশাপাশি খুবি আরামদায়ক একটি জায়গায়াও। দ্বীপটি পরিবারের জন্য আদর্শ, তিনি আরও বলেছেন যে বাসিন্দারা সুপ্রতিষ্ঠিত এবং প্রায় ৪৫ বছর বয়ষ্ক।

Loading...