The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

ব্যাংকের ভুলে ৩১৫ কোটি টাকার মালিক!

ভুল মানুষকে অনেক সময় নানা সমস্যায় ফেলে। তবে কিছু ভুল আবার কাওকে কোটিপতি বানিয়ে দেয়!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ভুল মানুষকে অনেক সময় নানা সমস্যায় ফেলে। তবে কিছু ভুল আবার কাওকে কোটিপতি বানিয়ে দেয়। যেমন হয়েছে এক নারীর ক্ষেত্রে। ব্যাংকের ভুলে ৩১৫ কোটি টাকার মালিক জনৈক নারী!

ব্যাংকের ভুলে ৩১৫ কোটি টাকার মালিক! 1

ভুল মানুষকে অনেক সময় নানা সমস্যায় ফেলে। তবে কিছু ভুল আবার কাওকে কোটিপতি বানিয়ে দেয়। যেমন হয়েছে এক নারীর ক্ষেত্রে। ব্যাংকের ভুলে ৩১৫ কোটি টাকার মালিক জনৈক নারী! এমনটি কিন্তু সচরাচর ঘটে না। তবে আধুনিক যুগ হওয়ায় সেটি সমস্যাতে পারিণত হয়। যেমন আগে ব্যাংকের কাজ করা হতো কাগজে-কলমে। কিন্তু এখন তা করা হয় অনলাইন মাধ্যমে। আর অনলাইন মাধ্যম হওয়ায় কখনও কোনো কিছুর ভুল হতে তা তাৎক্ষণাত সংশোধন করা বেশ কঠিন হয়ে পড়ে। কারণ কোনো ব্যাংকের কর্মকর্তা ভুল করলে তা সংশোধন করতে পারেন না। আগে খাতায় কেটে-কুটে আবার কখনও ফ্লুইড দিয়ে মুছে সংশোধন করা হতো। কিন্তু এখন তা আর সম্ভব হয়ে ওঠে না।

এবার এমনই এক ঘটনার সূত্রপাত ঘটেছে মার্কিন মুলুকে। ব্যাংকের ভুলে এক নারীর ব্যাংক অ্যাকাউন্টে জমা পড়ে বেশ এক বড় অংকের টাকা। প্রথমে তিনি ভেবেছিলেন হয়তো আসন্ন বড়দিন উপলক্ষে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ তাকে এই উপহার দিয়ে থাকতে পারেন। তবে প্রায় ৩ কোটি ৭০ লাখ ডলার (বাংলাদেশী টাকায় প্রায় ৩১৫ কোটি টাকার মতো) অর্থ নিশ্চয়ই ব্যাংক কাওকে উপহার দিতে পারে না। অবিশ্বাস্য হলেও সত্য যে গত সপ্তাহে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাস অঙ্গরাজ্যের বাসিন্দা রুথ বালুনের একাউন্টে ভুল করে এই বিশাল অংকের টাকা পাঠিয়ে দেয় একটি ব্যাংক। তার পরপরই ভুল স্বীকার করে ফোনেই রুথ নামে ওই নারীর কাছে ক্ষমা চান ব্যাংক কর্তৃপক্ষের একজন মুখপাত্র।

এই বিষয়ে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন যে, ডাটা এন্ট্রি করতে গিয়ে ভুলবশত: বিশাল পরিমাণ ওই অর্থ রুথের অ্যাকাউন্টে জমা হয়ে গিয়েছিলো। তবে ওই রাতে বিষয়টি সম্পর্কে তারা মোটেও অবগতই ছিলেন না। রুথই প্রথম ব্যাংক কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি অবহিত করে। তারপর ভুল স্বীকার করার পর রুথের অ্যাকাউন্ট হতে ওই টাকা ফেরত নিয়ে নিয়েছে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। বিষয়টি ব্যাংককে অবহিত করার জন্য রুথ এবং তার স্বামীকে বিশেষভাবে ধন্যবাদ জানিয়েছেন ব্যাংকটির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

Loading...