The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

চালু হলো পুরনো পণ্য কেনার অনলাইন প্ল্যাটফর্ম সোয়্যাপ

ঘরে বসে অথবা অফিসে যেকোনো জায়গা হতে পোর্টালটিতে নিজের পণ্য আপলোড করে বিক্রি করা যাবে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ পুরনো পণ্য কেনার দেশীয় অনলাইন প্লাটফর্ম সোয়্যাপ (www.swap.com. bd) গত ২০ ফ্রেব্রুয়ারি চালু হয়েছে। কোনো রকম তৃতীয় পক্ষ নয়, সোয়াপ কর্তৃপক্ষই কিনে নেবেন বিক্রেতার পুরনো পণ্যটি!

চালু হলো পুরনো পণ্য কেনার অনলাইন প্ল্যাটফর্ম সোয়্যাপ 1

সোয়্যাপ কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ঘরে বসে অথবা অফিসে যেকোনো জায়গা হতে পোর্টালটিতে নিজের পণ্য আপলোড করে বিক্রি করা যাবে।

পণ্য আপলোডের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সেটি কিনে নেবে সোয়্যাপ। সোয়্যাপের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. পারভেজ হোসেন এই বিষয়ে বলেছেন, দেশে এই ধরনের সেবা এটিই প্রথম। বর্তমানে প্রাথামিকভাবে ১০ ক্যাটাগরির পণ্য কিনবে সোয়্যাপ। তবে অচিরেই ক্যাটাগরির সংখ্যা আরও বাড়বে। ক্যাটাগরিগুলো হলো, স্মার্টফোন, গাড়ি, মোটর সাইকেল, ট্যাব, স্মার্ট ওয়াচ, ল্যাপটপ, টিভি, ফ্রিজ, এসি ও আসবাবপত্র!

সোয়্যাপের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. পারভেজ হোসেন আরও বলেছেন, নতুন এই প্ল্যাটফর্মে গ্রাহক সোয়্যাপ অ্যাপ বা ওয়েবসাইট ব্যবহার করে দেশের যেকোনো প্রান্তে বসেই তার পুরোনো পণ্য বিক্রয় করতে পারবেন।

প্রথমে সোয়্যাপ ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে গ্রাহককে পণ্য সম্পর্কে প্রয়োজনীয় সকল তথ্য দিতে হবে। সোয়্যাপের মূল্য নির্ধারক টিম ওই তথ্যের পাশাপাশি পণ্য যাচাই-বাছাই সাপেক্ষে মূল্যও নির্ধারণ করবে। গ্রাহক ওই মূল্যে বিক্রয়ে রাজি হলে পণ্যটি প্রদত্ত ঠিকানা হতে মূল্য পরিশোধ সাপেক্ষে সংগ্রহ করবে সোয়্যাপ।

পুরনো পণ্য বিক্রয়ের পাশাপাশি বিক্রেতাদের জন্য থাকছে নানা সুবিধাও। এর মধ্যে রয়েছে বিনিময় (অর্থাৎ এক্সচেঞ্জ), উপহার কার্ড (গিফট কার্ড) ইত্যাদি নানা সুবধিা। এসব সুবিধার মাধ্যমে গ্রাহকরা অর্থের পরিবর্তে বিভিন্ন মোবাইল ফোন প্রতিষ্ঠান, ইলেকট্রনিক সামগ্রীর প্রতিষ্ঠান, ই-কমার্স প্ল্যাটফর্ম হতে প্রয়োজনীয় মূল্য প্রদান করে নতুন পণ্যও কিনতে পারবেন।

সোয়্যাপের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. পারভেজ হোসেন আরও জানিয়েছেন, সোয়্যাপ এমন একটি প্ল্যাটফর্ম যেখানে গ্রাহক কিছু সহজ ধাপ অনুসরণ করে কয়েক মিনিটেই নিরাপদে ও নিশ্চিন্তে তার কাছে থাকা পণ্যটি বিক্রয় করতে পারবেন এবং বিভিন্ন সুবিধাও তারা নিতে পারে; এখানে কোনো মধ্যস্থতাকারীর কোনো ঝামেলা নেই, হেনস্তা হওয়ারও কোনো শঙ্কা নেই। সারাবিশ্বে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে পুরোনো পণ্যের বিক্রয় ব্যবসার জনপ্রিয়তা ক্রমান্বয়ে বাড়ছে।

বিশেষজ্ঞদের ধারণা মতে, এই ধরনের ব্যবসা আগামী ৫ বছরে দ্বিগুণ প্রসার ঘটবে। বাংলাদেশে এই ব্যবসার সূচনার মধ্যদিয়ে সোয়্যাপ বাণিজ্য ক্ষেত্রে নতুন সম্ভাবনার দ্বার উন্মোচন করলো বলে মনে করা হচ্ছে। সোয়্যাপ দেশের ই-কমার্সকে আরও টেকসই করবে বলেও সকলের বিশ্বাস। ঠিকানা : www.swap.com. bd

Loading...