The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

চুলের ডগা ফাটা রোধে কয়েকটি উপায়

নিয়মিত চুলের পরিচর্যার অভ্যাস না থাকলে ডগা ফেটে যাওয়ার মতো ঘটনা চলতেই থাকবে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ লম্বা ও সুন্দর চুল অথচ একটু বাড়তে না বাড়তেই ডগা ফেটে ছারখার? একটু আচড়াতেই ভেঙে ভেঙে পড়ে যাচ্ছে এবং বারোটা বাজাচ্ছে চুলের সৌন্দর্যের? এমনটি হলে অবশ্য মুশকিলের বিষয়। আজ চুলের ডগা ফাটা রোধে কয়েকটি উপায় জেনে নিন।

চুলের ডগা ফাটা রোধে কয়েকটি উপায় 1

নিয়মিত চুলের পরিচর্যার অভ্যাস না থাকলে ডগা ফেটে যাওয়ার মতো ঘটনা চলতেই থাকবে। চলুন আজ জেনে নেওয়া যাক এর সমাধানে কিছু করণীয় বিষয় সম্পর্কে:

চুলের ডগা ফাটার কারণসমূহ

# চুল রুক্ষতা হওয়া।
# চুলে পুষ্টির অভাব হওয়া।
# চুল অতিরিক্ত আঁচড়ানো।
# চলে ময়লা হওয়া।
# নিয়মিত চুলের আগা না কেটে ফেলা।
# সুষম খাদ্য না খাওয়া ইত্যাদি।

কি কি খাবেন

চুলের ডগা ফাটার একটি প্রধান কারণই হলো পুষ্টির অভাব। যেহেতু প্রোটিনের অভাবে চুল মলিন হয়ে যেতে পারে তাই দুধ, ডিম, মাছ এবং মাংস খেতে হবে নিয়মিতভাবে ও পরিমিত পরিমাণে। প্রচুর পরিমাণে পানিও পান করতে হবে। কখনও কখনও মিনারেলেরও প্রয়োজন পড়তে পারে, সে জন্য মিনারেল সমৃদ্ধ ভিটামিন যেমন সুপারভিট এম ক্যাপসুল প্রতিদিন একটা করে ২/৩ মাস খেলে উপকার পেতে পারেন। ভিটামিন ই ক্যাপসুলও চুলের জন্যে খুবই উপকারী। খুব ভালো সমাধান পেতে চাইলে এটি ৬ মাস খেয়ে দেখতে পারেন।

জেনে নিন কোন কাজগুলো করলে এ থেকে মুক্তি পাবেন

# ভেজা চুল আলতো করে মুছতে হবে। গোসল সারার পর মাথায় তোয়ালে না জড়িয়ে পুরনো নরম সুতির জামা কিংবা দোপাট্টা জড়িয়ে নিন। তোয়ালে ভেজা চুল আরও ফ্রিজি করে দিতে পারে।

# দ্রুত চুল শুকাতে হেয়ার ড্রায়ার ব্যবহার করে থাকেন অনেকেই। তবে এই হেয়ার ড্রায়ার ব্যবহার করা হতে যতো দূরে থাকবেন, চুল ততোই স্বাস্থ্যোজ্জ্বল থাকবে। একান্তই যদি ব্যবহার করতেই হয়, তাহলে সবচেয়ে কম হিটে ড্রায়ার করতে হবে। ড্রায়ার করার সময় চুল হতে অন্তত ৬ ইঞ্চি দুরে রাখুন ড্রায়ারের মুখ।

# ঝটপট চুল স্ট্রেট করতে হেয়ার স্ট্রেটনারের ব্যবহার বর্তমানে বেশ জনপ্রিয়। আপনারও যদি সেই অভ্যাস থাকে তাহলে হেয়ার স্ট্রেটনারের ব্যবহার কমিয়ে দিন। একান্তই ব্যবহার করতে হলেও তার আগে চুলে প্রোটেক্টিং সেরাম কিংবা স্প্রে লাগিয়ে নিতে হবে।

# চুলের কন্ডিশনিং মাস্ট। শ্যাম্পু করার পূর্বে নারিকেল তেল গরম করে স্ক্যাল্পসহ সারা চুলে লাগান। আধাঘণ্টা রেখে শ্যাম্পু করে নিন। শ্যাম্পু শেষে আপনার চুলের প্রকৃতি অনুযায়ী কন্ডিশনার লাগাতে অবশ্যই ভুলবেন না।

# ৬ মাস অন্তর অন্তর চুলের ডগা ট্রিম করে নিন। এতে করে চুলের আগা ফাটা যেমন বন্ধ হবে, চুল দ্রুত বৃদ্ধিপ্রাপ্ত হবে।

Loading...