The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

অপো নিয়ে এলো ১২৫ ওয়াটের ফ্ল্যাশ চার্জ

১২৫ ওয়াটের এই ফ্ল্যাশ চার্জিং প্রযুক্তি মোবাইল ফোনের জগতে একটি অবিস্মরণীয় সাফল্য বলা যায়

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ দ্রুত সময়ের মধ্যে স্মার্টফোন চার্জ দেওয়ার কথা চিন্তা করে অপো নিয়ে এলো ১২৫ ওয়াটের ফ্ল্যাশ চার্জ প্রযুক্তি। এর মাধ্যমে খুব কম সময়ের মধ্যেই মোবাইল ফোন চার্জ দেওয়া যাবে।

অপো নিয়ে এলো ১২৫ ওয়াটের ফ্ল্যাশ চার্জ 1

১২৫ ওয়াটের এই ফ্ল্যাশ চার্জিং প্রযুক্তি মোবাইল ফোনের জগতে একটি অবিস্মরণীয় সাফল্য বলা যায়। এই ফ্ল্যাশ চার্জ প্রযুক্তিতে তারের মাধ্যমে সরাসরি চার্জিংয়ের ক্ষেত্রে মাত্র ৫ মিনিটের মধ্যে ৪১ শতাংশ পর্যন্ত চার্জ দেওয়া যাবে এবং একটি ৪,০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের ব্যাটারি সম্পূর্ণ চার্জ হতে সময় নেবে মাত্র ২০ মিনিট। সেই সঙ্গে এটি পূর্ববর্তী সুপারভোক ও ভোক ফ্ল্যাশ চার্জ প্রোটোকলও সমর্থন করে এটি। বর্তমানে এটি স্মার্টফোন বাজারের সবচেয়ে উন্নত ফ্ল্যাশ চার্জিং প্রযুক্তি হিসেবে দেখা হচ্ছে।

এই ১২৫ ওয়াটের ফ্ল্যাশচার্জ ফাইভজি প্রযুক্তিতে বিশেষ ভূমিকা রাখবে। সুপারভোক প্রযুক্তি হতে অনুপ্রাণিত হয়ে এই চার্জিং ব্যবস্থায় হার্ডওয়্যারে এটির ব্যাপক উন্নতি করা হয়েছে যা ২০ ভোল্টে ৬.২৫ অ্যাম্পিয়ার পর্যন্ত চার্জ প্রদান করতে পারবে। তবে এই প্রযুক্তির ব্যবহারের কারণে চার্জারের আকারও অনেক বড় হবে না।

এদিকে এই চার্জিং ক্যাপাসিটি বৃদ্ধির কারণে নিরাপত্তার দিকেও বিশেষ নজর দিয়েছে অপো। ১২৫ ওয়াটের ফ্ল্যাশ চার্জিংয়ে ফোনের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্যে এতে থাকছে ১০টি অতিরিক্ত টেমপারেচার সেন্সরও যোগ করা হয়েছে যা চার্জিংয়ের সময় তাপমাত্রার অবস্থা সার্বক্ষণিক পর্যবেক্ষণ করবে। এছাড়াও ফিউজ ওভারভোল্টেজ প্রটেকশন সিস্টেমও রাখা হয়েছে।

১২৫ ওয়াট ফ্যাছেশ চার্জিং প্রযুক্তির সঙ্গে ৬৫ ওয়াটের এয়ারভোক ওয়্যারলেস ফ্ল্যাশ চার্জ, ৫০ ওয়াটের মিনি সুপারভোক চার্জার ও ১১০ ওয়াটের ফ্ল্যাশ চার্জারও নিয়ে এলো অপো।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...