The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

ইন্টারনেট কোম্পানির নামে শিশুর নাম রাখলেই পাবেন ফ্রি ইন্টারনেট!

সুইজারল্যান্ডের এক দম্পতি স্থানীয় একটি গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ১৮ বছর পর্যন্ত ইন্টারনেট ফ্রি পেতে হলে আপনাকে সদ্যোজাত সন্তানের নাম রাখতে হবে কোম্পানির নামে। এমনই বিজ্ঞাপনে ছেয়ে গেছে সুইজারল্যান্ড শহর। তবে এতে রাজিও হয়েছেন বেশ কিছু বাবা মা!

ইন্টারনেট কোম্পানির নামে শিশুর নাম রাখলেই পাবেন ফ্রি ইন্টারনেট! 1

সুইজারল্যান্ডের এক দম্পতি স্থানীয় একটি গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন যে, তাদের নবজাতক কন্যার নাম রেখেছেন একটি ইন্টারনেট পরিষেবা সরবরাহকারীর নামে। ইন্টারনেট পরিষেবা প্রদানকারী সংস্থাটির নাম হলো টোফি।

সংস্থাটি তাদের পরবর্তী ১৮ বছরের জন্য ফ্রি ওয়াইফাই পরিষেবা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেওয়ার পর সুইস ওই দম্পতি এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন!

উল্লেখ, টোফি নামে এই পরিষেবা সরবরাহকারী একটি সোশ্যাল মিডিয়া বিজ্ঞাপন প্রচার চালিয়ে জানায় যে, কোনও নবজাতকের বাবা-মা যদি তাদের সংস্থার নামে তাদের সন্তানের নাম রাখেন তাহলে তারা ১৮ বছরের জন্য বিনামূল্যে ইন্টারনেট সরবরাহ করবেন। চুক্তি মোতাবেক, ছেলে হলে নাম টোভিফিয়াস রাখতে হবে। অপরদিকে, মেয়ে হলে নাম রাখতে হবে টোফিয়া।

সদ্যোজাতর বাবা এই বিজ্ঞাপনটি ফেসবুকে দেখেন। লোভনীয় অফার সত্ত্বেও তারা প্রথমে অনিচ্ছুকই ছিলেন, শেষ পর্যন্ত তারা ১৮ বছরের জন্য যে পরিমাণ সাশ্রয় করতে পারবেন সেটি বিবেচনা করে তাদের কন্যার মধ্য নামটি টোফিয়া হিসাবে রাখার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন।

উল্লেখ্য যে, ইন্টারনেট খরচ না করার ওই সংরক্ষিত অর্থ নবজাতক কন্যার নামে খোলা একটি সঞ্চয়ী অ্যাকাউন্টে রাখা হবে বলেও জানান তিনি। তার বয়স যখন ১৮ বছর হবে, তখন তাকে গাড়ি কেনার জন্য কিংবা পড়াশোনা চালিয়ে যাওয়ার জন্য ওই অর্থ ব্যবহারের অনুমতি দেওয়া হবে।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

Loading...