The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

যেসব জিমেইল অ্যাকাউন্ট বন্ধ হয়ে যাবে

নতুন নীতি অনুযায়ী বলা হয়েছে, বিগত দুই বছরেরও বেশি সময় ধরে যে সমস্ত অ্যাকাউন্টগুলো ইনঅ্যাকটিভ অবস্থায় রয়েছে, সেগুলো পুরোপুরিভাবে ডিলিট করে দেওয়া হবে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ২০২১ সালে গুগলের বেশ কিছু নতুন নিয়মের মুখে পড়তে যাচ্ছেন এর ব্যবহারকারীরা। যার মধ্যে অন্যতম হলো গুগল ফটোজে বিনামূল্যে ছবি রাখার সুবিধা তুলে নেওয়া, এমনকি ইনঅ্যাকটিভ অ্যাকাউন্টও বন্ধ করে দেয়া হবে বলে জানানো হয়েছে।

যেসব জিমেইল অ্যাকাউন্ট বন্ধ হয়ে যাবে 1

নতুন নীতি অনুযায়ী বলা হয়েছে, বিগত দুই বছরেরও বেশি সময় ধরে যে সমস্ত অ্যাকাউন্টগুলো ইনঅ্যাকটিভ অবস্থায় রয়েছে, সেগুলো পুরোপুরিভাবে ডিলিট করে দেওয়া হবে। আগামী বছরের ১ জুন থেকেই নাকি এই নিয়ম কার্যকর হবে। তবে এই নিয়ম কার্যকরের আগেই প্রত্যেক অ্যাকাউন্টধারীকে ই-মেইল মারফত সতর্কবার্তাও পাঠানো হবে গুগলের পক্ষ হতে।

সম্প্রতি গুগলের পক্ষ হতে জানানো হয় যে, ব্যবহারকারীরা বিনামূল্যে আর গুগল ফটোজ ব্যবহার করতে পারবেন না। আরও বলা হয়, যে সমস্ত অ্যাকাউন্ট হোল্ডাররা জিমেইল, গুগল ড্রাইভ, ডকুমেন্টস, শিটস, স্লাইডস, ড্রইংস, ফর্মস ও জ্যামবোর্ড ফাইলস দুই বছরেরও বেশি সময় ধরে একেবারেই ব্যবহার করেননি, তাদের সেই সমস্ত অ্যাকাউন্টও ডিলিট করে দেওয়া হবে।

তবে ইনঅ্যাক্টিভ অ্যাকাউন্ট হোল্ডারদের বিশ্বাসযোগ্য কন্টাক্টসদের কাছে তাদের অ্যাকাউন্ট সংক্রান্ত সমস্ত গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পৌঁছে দেওয়ার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে বিশ্বের জনপ্রিয় এই টেক জায়ান্টের পক্ষ হতে। যদি সেই ইউজারের অ্যাকাউন্টটি ৩-১৮ মাসের ব্যবধানে ইনঅ্যাক্টিভ থাকে সেইক্ষেত্রে।

তবে ব্যবহারকারীদের দুশ্চিন্তার কোনো কারণ নেই। আপাতত যেটা করতে পারেন সেটি হলো, নিজের মোবাইল, ল্যাপটপ কিংবা ডেস্কটপ নেট কানেক্ট করে নিয়মিতভাবে জিমেইল-এ লগ ইন করুন। পারলে অপ্রয়োজনীয় মিডিয়া ও ফাইলস ডিলিট করে ফেলতে পারেন। এতে করে আপনার অ্যাকাউন্টে জায়গা সৃষ্টি হবে। তা অ্যাকটিভও থাকবে নিয়মিতভাবে। যে কারণে অ্যাকাউন্ট ডিলিট হওয়া থেকে রেহাও পাওয়া যাবে।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...