The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

অভিনেত্রী চম্পার এখন সময় কাটছে ইবাদত বন্দেগিতে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ যাকে বলা যায় অবসর নেওয়া। ঠিক তাই, অভিনয় জগত ছেড়ে অভিনেত্রী চম্পার এখন সময় কাটছে ইবাদত বন্দেগিতে।

অভিনেত্রী চম্পার এখন সময় কাটছে ইবাদত বন্দেগিতে 1

করোনা ভাইরাসের কারণে কোনো শুটিংই করছেন না অভিনেত্রী গুলশান আরা আক্তার চম্পা। এই সুযোগে পরিবারকে অনেক বেশি করে সময় দিচ্ছেন তিনি।

চম্পার জন্ম ৫ জানুয়ারি ১৯৬৫। শিবলী সাদিকের ‘তিন কন্যা’ সিনেমার মাধ্যমে চলচ্চিত্রে অভিষেক ঘটেছিলো অভিনেত্রী গুলশান আরা আক্তার চম্পার। তবে ১৯৮১ সালে ছোটপর্দায় প্রয়াত আব্দুল্লাহ আল মামুনের ‘ডুবসাঁতার’ নাটকের মাধ্যমে অভিনয় অঙ্গনে আগেই যাত্রা শুরু হয়েছিলো তার।

তবে অবকাশ যাপনের এই সময়টিতে ইবাদতে আরও বেশি মশগুল হয়েছেন আশির দশকের এই জনপ্রিয় অভিনেত্রী।

বর্তমানে তাঁর অবসর সময় কাটানো সম্পর্কে সংবাদ মাধ্যমকে চম্পা বলেছেন, করোনার কারণে এখন কাজ করছি না। বাসাতেই সময় কাটাচ্ছি। ধর্মকর্ম ও ইবাদত-বন্দেগির মধ্যেই রয়েছি। বাসার বিভিন্ন কাজও করছি। পরিবারকে অনেকটা সময় দিচ্ছি।

চম্পা অভিনীত সর্বশেষ সিনেমা ‘বিশ্বসুন্দরী’ মুক্তি পায় গত ডিসেম্বর মাসে। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে ও মনের মতো গল্প পেলে আবারও নতুন সিনেমায় তিনি অভিনয় করবেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

আশির দশকের মাঝামাঝি সময় হতে নব্বই দশকের প্রথমার্ধ পর্যন্ত বাণিজ্যিক চলচ্চিত্রের এক নম্বর নায়িকা হিসেবে অবস্থান করছেন চম্পা। সামাজিক, অ্যাকশন, ফোক-সব ধরনের চলচ্চিত্রেই তিনি দারুণভাবে সফল হয়েছেন।

এক সময় নিয়মিত দাপিয়ে বড় পর্দায় অভিনয় করতেন চম্পা। উপহার দিয়েছেন অসংখ্য সুপারহিট চলচ্চিত্র। আর সেই সুবাদে সেরা অভিনেত্রী হিসেবে ৩ বার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন। তিনি সেরা পার্শ্ব অভিনেত্রী হিসেবে দুবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন। এছাড়াও ‘শেরেবাংলা পদক’ও পেয়েছেন এই অভিনেত্রী।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...